মেইন ম্যেনু

বদহজমের সমস্যা দূর করুন ঘরোয়া ৫ উপায়ে

একটু বেশি খাওয়া অথবা বেশি তৈলাক্ত খাবার খাওয়ার কারণে হজমের সমস্যা হতে পারে। পেট ফাঁপা দেখা দেওয়ার মূল কারণ এটি। বিশেষ করে যদি কোন অনুষ্ঠান থাকে তবে তারপর এই ধরণের সমস্যা দেখা দেয়। তেল, মশলা চর্বি জাতীয় খাবার সহজে হজম হতে চায় না। এই অস্বস্তিকর সমস্যাটা ছোট বড় সবার হতে পারে। এই সমস্যা থেকে রেহাই পাওয়ার জন্য অনেকে নানা ধরণের গ্যাসের ওষুধ খেয়ে থাকেন। ওষুধ খাওয়ার চেয়ে ঘরোয়া উপায়ে এই সমস্যা দূর করা ভাল। চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক ঘরোয়া উপায়গুলো।

১। আদা, লেবু এবং মধুর মিশ্রণ

দুই টেবিল চামচ লেবুর রস, আদার রস এবং মধু এক গ্লাস কুসুম গরম পানিতে মিশিয়ে নিন। এটি খাবার খাওয়ার পর পান করুন। দেখবেন হজমের সমস্যা অনেকটাই কমে গেছে।

২। বেকিং সোডার ব্যবহার

পাকস্থলীর অপ্রয়োজনীয় অ্যাসিডের অতিরিক্ত নিঃসরণের ফলে অনেক সময় বদহজম হয়ে থাকে। এই সমস্যা দূর করতে বেশ কার্যকর এই বেকিং সোডা। আধা গ্লাস পানিতে আধা চা চামচ বেকিং সোডা মিশিয়ে পান করে ফেলুন। দ্রুত বদহজমের সমস্যা দূর হবে। আধা গ্লাসের চাইতে বেশি পরিমাণে পান করেবেন না।

৩। অ্যাপেল সাইডার ভিনেগার

অ্যাপেল সাইডার ভিনেগার প্রাকৃতিকভাবে হজমের সমস্যা দূর করে। এক কাপ পানিতে এক টেবিল চামচ অ্যাপেল সাইডার ভিনেগার মেশান। এরসাথে এক চা চামচ মধু মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণটি দিনে তিনবার পান করুন।

৪। গোলমরিচের ব্যবহার

বদহজমের সমস্যা হয় মূলত পাকস্থলীতে হাইড্রোক্লোরিক এসিডের অভাবে। এই সমস্যা সমাধানে বিশেষ ভূমিকা পালন করে গোলমরিচ। সামান্য গোলমরিচ গুঁড়োর সাথে গুড় এবং বাটারমিল্কের মিশ্রণ খুব সহজেই বদহজম দূর করতে পারে। গোলমরিচের গুঁড়ো, শুকনো পুদিনা পাতার গুঁড়ো, আদা গুঁড়ো এবং ধনে বীজ সমপরিমাণে মিশিয়ে নিয়ে দিনে মিশ্রণের ১ চা চামচ দুই বার খেলেও বদহজমের সমস্যা এড়ানো সম্ভব।

৫। দারুচিনি

এক কাপ গরম পানিতে আধা চা চামচ দারচিনিত গুঁড়ো মিশিয়ে নিন। এটি কয়েক মিনিট জ্বাল দিন। ঠান্ডা হলে পান করুন। দ্রুত ফল পেতে চাইলে কুসুম গরম পানিতে পান করুন।

এই ঘরোয়া উপায়গুলো বদহজমের সমস্যা অনেকটা কমিয়ে দেয়। যদি এরপর সমস্যা থেকে যায় তবে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ গ্রহণ করা উচিত।






মন্তব্য চালু নেই