মেইন ম্যেনু

বন্ধ হচ্ছে ২ কোটি ৭১ লাখ সিম

বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে অনিবন্ধিত দুই কোটি ৭১ লাখেরও বেশি সিম বন্ধের প্রক্রিয়া চলছে । পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী মঙ্গলবার রাত ১২টার পর থেকে এ কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

বাংলাদেশে ডাক ও টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রন কমিশনের সিনিয়র সহকারী পরিচালক জাকির হোসেন খান বুধবার সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘১ জুন জিরো আওয়ার থেকে সব অনিবন্ধিত সিম বন্ধের প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেছে। তবে বন্ধ করতে গিয়ে টেকনিক্যাল কারণে কিছু নিবন্ধিত সিম বন্ধ হচ্ছে বলে জানতে পেরেছি। তবে এ সমস্যা দ্রুত কেটে যাবে।’

বিটিআরসির সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, গ্রাহকের হাতে থাকা প্রায় ১৩ কোটি ২০ লাখ সিমের মধ্যে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে নিবন্ধিত হয়েছে ১০ কোটি ৪৮ লাখ ৬৫ হাজার ৩০৬ সিম । সে হিসেবে এখনও অনিবন্ধিত সিমের সংখ্যা ২ কোটি ৭১ লাখ ৩৪ হাজার ৬৯৪।

বিটিআরসির দেওয়া হিসেবে এখন পর্যন্ত গ্রামীণফোনের ৪ কোটি ৯০ লাখ ১৫ হাজার ৮৯৬টি, বাংলালিংক ২ কোটি ৬৬ লাখ ৪৬ হাজার ৪৭৬, রবি ২ কোটি ১০ লাখ ৪ হাজার ৩২২, এয়ারটেল ৭৬ লাখ ৮০ হাজার ৬৫১, রাষ্ট্রায়ত্ত অপারেটর টেলিটকের ১২ লাখ ৭৪ হাজার ২৫২টি এবং সিটিসেলের ১ লাখ ৪৩ হাজার ৭০৯টি সিম নিবন্ধিত হয়েছে।

পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী অনিবন্ধিত সিম মঙ্গলবার রাত ১২টার পর থেকেই বন্ধ হতে শুরু করেছে। তবে বন্ধ হলেও ৪৫০ দিনের মধ্যে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে নিবন্ধন করে পুনরায় সিম চালু করা যাবে। আর বন্ধ হয়ে যাওয়া সিম পুনরায় পেতে প্রমাণ সাপেক্ষে কিনতে হবে হবে নিজের সিমটি।

৪৫০ দিন পর বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে সংযোগ বিক্রির ঘোষণা দিতে পারবে অপারেটর। এরপর ভেরিফিকেশন করে সংযোগ পেতে ৯০ দিন সময় পাবেন গ্রাহক। তবে সিম পুনর্নিবন্ধন না হলে নির্ধারিত সময়ের পর অন্য গ্রাহকের কাছে সিমটি বিক্রি করা যাবে।






মন্তব্য চালু নেই