মেইন ম্যেনু

বন্ধ হয়ে গেলো দ্য ইন্ডিপেনডেন্টের প্রিন্ট সংস্করণ

ব্রিটেনের প্রভাবশালী পত্রিকা দ্য ইন্ডিপেনডেন্ট সর্বশেষ প্রিন্ট সংস্করণ ছেপেছে শনিবার। ৩০ বছরের পুরনো এই পত্রিকাটি এখন থেকে শুধু অনলাইনেই প্রকাশিত হবে।

এটিই ব্রিটেনে মূলধারার প্রথম কোনো পত্রিকা যারা নিজেদেরকে মুদ্রণযন্ত্রে ছাপা থেকে অনলাইনে রূপান্তর ঘটালো। দৈনিক পত্রিকাটি ১৯৮৬ সাল থেকে প্রকাশিত হয়ে আসছিলো।

পত্রিকাটির সবশেষ প্রিন্ট এডিশনের প্রথম পাতায় এক্সক্লুসিভ একটি প্রতিবেদন ছাপা হয়েছে যেখানে একজন সৌদি বাদশাহকে হত্যার ষড়যন্ত্রে ব্রিটিশ যোগাযোগের কথা বলা হয়েছে। প্রথম দিকে বেশ সাফল্য পেয়েছিলো ইন্ডিপেন্ডেন্ট, পরে তার সাথে যুক্ত হয় সানডে এডিশন বা রোববারের সংস্করণ এবং একটি ট্যাবলয়েড পত্রিকা।

সম্প্রতি পত্রিকাটির প্রচার সংখ্যা উল্লেখযোগ্য পরিমাণে কমে গেছে। বলা হচ্ছে, পত্রিকাটি যখন জনপ্রিয়তার তুঙ্গে ছিলো তখন দৈনিক প্রচার সংখ্যা ছিলো চার লাখের মতো। কিন্তু পত্রিকাটির ছাপার সংস্করণ বন্ধ হয়ে যাওয়ার আগ পর্যন্ত তা কমে এসেছিলো মাত্র ৪০ হাজারে।

তবে এর ডিজিটাল সংস্করণটি ইতোমধ্যেই জনপ্রিয়তা পেয়েছে। পত্রিকাটির বর্তমান মালিক এভগেনি লেবেদেফ বলেছেন, প্রিন্ট থেকে ডিজিটালে ঐতিহাসিক এই রূপান্তর ঘটানোর এখনই প্রকৃষ্ট সময়।

পত্রিকাটির সম্পাদকীয়তে লেখা হয়েছে, আজ এই পত্রিকাটির প্রেস বন্ধ হয়ে গেলো, কালি শুকিয়ে গেছে, পত্রিকাটিতে আর কোনো ভাঁজ পড়বে না। কিন্তু একটি অধ্যায় যেমন সমাপ্ত হলো তেমনি শুরু হলো আরেক অধ্যায়ের। দ্য ইন্ডিপেনডেন্ট পত্রিকার যে লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য আছে তা অব্যাহত থাকবে।






মন্তব্য চালু নেই