মেইন ম্যেনু

বরিশালে টেন্ডার নিয়ে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ

বরিশাল নগরীতে টেন্ডার বাগিয়ে নেয়াকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়েছে। এতে উভয়গ্রুপের ১০ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে নগরীর জিলাস্কুল সংলগ্ন বরিশাল গণপূর্তের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলীর কার্যালয়ে। এসময় কার্যালয়ে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করা হয়েছে। খবর পেয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বরিশালে মেরিন একডেমী নির্মাণে জন্য প্রায় ৬ কোটি টাকার দরপত্র আহবান করে বরিশাল গণপূর্ত অধিদপ্তর। এর বিপরীতে ১৮টি সিডিউল বিক্রি হয়। মঙ্গলবার ছিলো সিডিউল জমাদানের শেষদিন। ওইদিন সকাল থেকেই সরকারি বিএম কলেজের ভিপি, ছাত্রলীগ নেতা মঈন তুষারের নেতৃত্বে তার সমর্থক নেতাকর্মীরা কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নেয়। প্রায় একই সময়ে জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক তার সহযোগী নেতাকর্মীদের নিয়ে সেখানে অবস্থান করেন। এসময় সাধারন ঠিকাদারদের দরপত্র জমাদান ও বাঁধা প্রদানকে কেন্দ্র করে উভয় গ্রুপের মধ্যে হাতাহাতির একপর্যায়ে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। এতে উভয় গ্রুপের কমপক্ষে ১০ নেতাকর্মী আহত হয়।

জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক বলেন, তিনিসহ তার সহযোগীরা দরপত্র জমা দিতে গেলে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমুর নাম ভাঙিয়ে তাদের বাঁধা প্রদান করে মঈন তুষার, পাসপোর্ট সোহাগ, পন্ডিত রাজীবসহ ১০/১২জন ক্যাডাররা। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়ে তার (রাজ্জাক) নেতাকর্মীরা মঈন তুষারসহ সকলকে মারধর করে কার্যালয় থেকে বের করে দিয়েছেন। বিএম কলেজ ছাত্রলীগের ভিপি মঈন তুষার বলেন, কেন্দ্রীয় যুবলীগ নেতা সাদিক আব্দুল্লাহর সহযোগী জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক দরপত্র জমাদানকালে তাদের বাঁধা প্রদান করেছে। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়ে তার (মঈন তুষার) নেতাকর্মীরা রাজ্জাকসহ বেশ কয়েকজনকে মারধর করেছে।






মন্তব্য চালু নেই