মেইন ম্যেনু

বরিশালে সুন্দরবনের দুই দস্যু বাহিনীর ১৪ সদস্যর আত্মসমর্পণ

বরিশাল প্রতিনিধি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের কাছে অস্ত্র জমা দিয়ে বরিশালে সুন্দরবনের দস্যু শান্ত ও আলম বাহিনীর ১৪ সদস্য আনুষ্ঠানিকভাবে আত্মসমর্পণ করেছেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে নগরীর রূপাতলীস্থ র‌্যাব-৮ এর কার্যালয়ে তারা আত্মসমর্পণ করেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজরি আহমেদ, জাতীয় সংসদের প্যানেল স্পীকার এ্যাডভোকেট তালুকদার মোঃ ইউনুস এমপি, বরিশালের জেলা প্রশাসক ড. গাজী মোঃ সাইফুজ্জামান। সূত্রমতে, প্রথমে দস্যু শান্ত বাহিনীর প্রধান আব্দুল বারেক তালুকদার শান্তর নেতৃত্বে তার দলের ১০ সদস্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হাতে অস্ত্র তুলে দিয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসেন।

এরপর আলম বাহিনীর প্রধান মোঃ আলম তার বাহিনীর চার সদস্যদের নিয়ে আত্মসমর্পণ করেন। তাদের সবার বাড়ি বাগেরহাটের মংলায়। এ সময় জলদস্যুরা ২০টি আগ্নেয়াস্ত্র ও ১ হাজার ৮ রাউন্ড গুলি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হাতে জমা দিয়েছেন।

র‌্যাব-৮ এর উপ-অধিনায়ক মেজর আদনান জানান, আত্মসমর্পণের উদ্দেশ্যে দস্যুবাহিনী দুটিকে কড়া নিরাপত্তার মাধ্যমে বরিশাল নগরীতে আনা হয়। এর আগে বুধবার ভোর ৫টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত সুন্দরবনে অভিযান চালায় র‌্যাব-৮ এর সদস্যরা। অভিযানে শান্ত বাহিনীর ১০জন ও আলম বাহিনীর ৪ জনসহ সর্বমোট ১৪ জন দস্যু র‌্যাব-৮ এর কাছে আত্মসমর্পণ করে।

এসময় ৯টি বিদেশী একনালা বন্দুক, ২টি বিদেশী দোনালা বন্দুক, ৫টি ২২ বোর বিদেশী এয়ার রাইফেল, ২টি ওয়ান শুটার গান এবং ২টি কাটা রাইফেলসহ সর্বমোট ২০টি দেশি-বিদেশী আগ্নেয়াস্ত্র এবং সর্বমোট ১ হাজার ৮ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়। আত্মসমর্পনকৃতদের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার প্রক্রিয়া চলছে।






মন্তব্য চালু নেই