মেইন ম্যেনু

বহিষ্কার হতে পারেন বাবলু

কোন্দলের জেরে দলের মহাসচিব পদ থেকে বহিষ্কার করা হতে পারে জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলুকে। রংপুর থেকে ঢাকায় ফিরে পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ এমন সিদ্ধান্ত নিতে পারেন বলে দলের ঘনিষ্ঠ সূত্র জানিয়েছে।

সূত্র জানায়, ঢাকার আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নেমে কিংবা বনানী কার্যালয়ে ডাকা সংবাদ সম্মেলনে বহিষ্কারের এ ঘোষণা দিতে পারেন এরশাদ।

এদিকে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে রাজধানীর বনানী কার্যালয়ে জরুরি সংবাদ সম্মেলন ডেকেছেন পার্টির চেয়ারম্যান এরশাদ। রংপুর থেকে ফিরে তার সংবাদ সম্মেলনে যোগ দেওয়ার কথা রয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দলের প্রভাবশালী এক প্রেসিডিয়াম সদস্য জানান, পার্টির চেয়ারম্যান থাকাবস্থায় বিরোধী নেতাকে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ঘোষণা করায় দলের বর্তমান মহাসচিব বাবলুর বিরুদ্ধে খেপেছেন এরশাদ। পার্টির চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়া এবং দলীয় শৃঙ্খলাবিরোধী কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগ এনে বাবলুকে বহিষ্কারের প্রাথমিক সিদ্ধান্ত হয়েছে। স্যার ঢাকায় ফিরে যেকোনো সময় এ ঘোষণা দিতে পারেন।

জানা গেছে, বাবলুকে সরিয়ে দলের মহাসচিব হিসেবে প্রাক্তন মহাসচিব এ বি এম রুহুল আমিন হাওলাদারকে ওই পদে মনোনয়ন দিতে পারেন এরশাদ। এমন সিদ্ধান্ত নিয়েই রংপুর থেকে তিন দিনের সফর শেষে ঢাকায় ফিরছেন তিনি।

সূত্র জানায়, কোন্দলের জেরে ঢাকার বিমানবন্দরে এরশাদকে শোডাউন করে বরণ করে নেওয়ার প্রস্তুতি নিয়েছে নেতা-কর্মীরা। দলের প্রাক্তন মহাসচিব এ বি এম রুহুল আমিন হাওলাদার, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, সেক্রেটারি জহিরুল আলম রুবেলের নেতৃত্বে বিমানবন্দরে শোডাউন করা হবে বলে জানা গেছে। ইতিমধ্যে বিমানবন্দরে নেতা-কর্মীরা জড়ো হতে শুরু করেছেন।

দলের ভাইস চেয়ারম্যান এ টি এম গোলাম মাওলা চৌধুরী বলেন, ‘আমরা সবাই স্যারের নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ রয়েছি। নেতা-কর্মীরাই দলের ষড়যন্ত্রকারীদের প্রতিহত করবে।’

দলের দপ্তর সম্পাদক সুলতান মাহমুদ বলেন, ‘দলের নেতা-কর্মীরা সবাই পার্টির চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ রয়েছেন। সবাই বিমানবন্দরে উপস্থিত থাকবেন। আমরা পার্টির চেয়ারম্যানকে বরণ করে নিয়ে যাব।’

জানা গেছে, বাবলুকে বহিষ্কারের পাশাপাশি যারা এতে জড়িত তাদের সতর্ক করা হতে পারে।






মন্তব্য চালু নেই