মেইন ম্যেনু

“বাংলাওয়াশ নয় হোয়াইটওয়াশ”

জিম্বাবুয়ে সিরিজের আগে বাংলাদেশের চিন্তার নাম হয়ে দাঁড়িয়েছে র‌্যাংকিংয়ে অবস্থান ধরে রাখা। ওয়ানডে সিরিজ ৩-০ ব্যবধানে না জিতলে পয়েন্ট কমে যাবে। সেক্ষেত্রে সাত নম্বর থেকে আট নম্বরে যেতে হতে পারে। সেটা এড়াতে চাই আরেকটা ‘হোয়াইটওয়াশ’। বাংলাদেশে যার অন্য নাম ‘বাংলাওয়াশ’। মাশরাফিকে সংবাদ সম্মেলনে ব্যাপারটা নিয়ে প্রশ্ন করতেই বললেন, ‘বাংলাওয়াশ নয় হোয়াইটওয়াশ।’ প্রশ্নকর্তাকে সঙ্গে ধন্যবাদও জানিয়ে দিলেন ‘বাংলাওয়াশ’ শব্দটা ব্যবহার না করার জন্য।

প্রথম ম্যাচটাকে গুরুত্বপূর্ণ বলে মন্তব্য করে মাশরাফি বলেন, ‘পয়েন্ট নিয়ে আলোচনা করতে চাই না। তাহলে খেলোয়াড়দের ওপর নেগেটিভ প্রভাব পড়তে পারে। জয় পেতে আমি আত্মবিশ্বাসী। প্রথম ম্যাচ জিতলে আমাদের বাকী কাজটা সহজ হয়ে যাবে।’

প্যানপ্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন মাশরাফি। তার আগে ট্রফি উন্মোচন করেন দুই অধিনায়ক।

প্রস্তুতি ম্যাচে অতিথিদের কাছে হারলেও ব্যাপারটাকে বড় করে দেখছেন না বাংলাদেশ কাপ্তান, ‘প্রস্তুতি ম্যাচ মানে প্রস্তুতি ম্যাচ। গতকাল আমি অফ স্পিনারের অভাব বোধ করেছি। একটা অফ স্পিনার থাকলে ওদের চাপে ফেলতে সহজ হতো। বাংলাদেশ টিমে এই সমস্যা হবে না। সাকিব থাকবে। নাসিরকেও ব্যবহার করতে পারব।’

শনিবার মিরপুরে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে মুখোমুখি হবে দুই দল। আজ বিকেলে ফতুল্লায় শেষ অনুশীলন সারবে বাংলাদেশ। অন্যদিকে জিম্বাবুয়ে অনুশীলন করবে মিরপুরে।

বাংলাদেশ দলের বেশ কয়েকজন খেলোয়াড় নিয়মিত পারফর্ম করায় সাকিবের ওপর থেকে চাপ কমছে বলে অনেকটা স্বস্তিতে আছেন নড়াইল এক্সপ্রেস, ‘সাকিব বাংলাদেশের নির্ভরতার নাম। কিন্তু গত কয়েক সিরিজে তার ওপর থেকে অনেক চাপ কমেছে। আমি চাইব ব্যাটিংয়ে সাকিব পর্যন্ত যাওয়ার আগে যেন ম্যাচ শেষ হয়ে যায়।’






মন্তব্য চালু নেই