মেইন ম্যেনু

বাংলাদেশের বিদায়, সেমিতে মালদ্বীপ

টানা দুই ম্যাচ হেরে সুজুকি কাপ সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম পর্ব থেকেই বিদায় নিলো বাংলাদেশ। আজ ভারতের কেরালায় মালদ্বীপের কাছে ৩-১ গোলে হেরে যায় তারা। অন্য দিকে টানা দুই ম্যাচ জিতে শেষ চারে জায়গা করে নিল ছোট দ্বীপ রাষ্ট্র মালদ্বীপ। প্রথম ম্যাচে ভুটানকে ৩-১ গোলে হারিয়েছিল মালদ্বীপ।

জয়ের বিকল্প নেই। এ জন্য শুরু থেকে জানপ্রাণ দিয়েই খেলছিল বাংলাদেশ। ১১ মিনিটে সুযোগ এসেছিল তাদের সামনে। কিন্তু জাহিদের নেওয়া শট পোস্টের অল্প বাইরে দিয়ে চলে যায়। ২৬ মিনিটে আরেকটি সুযোগ আসে। ওয়ালি ফয়সাল মালদ্বীপের রক্ষণকে পাশ কাটিয়ে বল দেন জাহিদকে। জাহিদ হেডও নিয়েছিলেন, কিন্তু তা বারপোস্টে লেগে ফেরত আসে।

২৮ মিনিটে ভালো একটি সুযোগ নস্ট করেন হেমন্ত। জামাল ভূঁইয়ার ক্রস থেকে গোল মুখে ঢুকে পড়েছিলেন তিনি। কিন্তু কার্যকর শট নিতে পারেননি তিনি। ৪১ পেনাল্টি পায় মালদ্বীপ। ইমাজ আহমেদের শট বক্সের মধ্যে হাত দিয়ে প্রতিহত করেন বাংলাদেশের ডিফেন্ডার ওয়ালি ফয়সাল।

পেনাল্টি শট নষ্ট করেননি মালদ্বীপের খ্যাতনামা স্ট্রাইকার আলী আশফাক। ১-০তে লিড নেয় মালদ্বীপ। শেষ পর্যন্ত এক গোলে পিছিয়ে থেকেই প্রথমার্ধের খেলা শেষ করে বাংলাদেশ।

দ্বিতীয়ার্ধে গোল পরিশোধের জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে বাংলাদেশ। কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হচ্ছিলো না। অবশেষে ৮৭ মিনিটে হেমন্তের গোলে স্বস্তি এনে দেয় বাংলাদেশ শিবিরে। ১-১ সমতা আসে ম্যাচে।

কিন্তু বেশিক্ষণ সমতা ধরে রাখতে পারেনি বাংলাদেশ। পরের মিনিটেই বাংলাদেশকে হতাশ করে অসাধারণ এক গোলে মালদ্বীপকে ফের লিড এনে দেন হাসান নাইজ। এরপর ইনজুরি টাইমে আরো একটি গোল করে ব্যবধান বাড়িয়ে নেয় দ্বীপরাষ্ট্রটি। গোল দাতা নাসিদ আহমেদ। শেষ পর্যন্ত ৩-১ গোলের হার নিয়েই মাঠ ছাড়ে বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ সাফে এবার ‘বি’ গ্রুপে খেলছে। এখানে রয়েছে আফগানিস্তান, মালদ্বীপ ও ভুটান। এটি ছিল বাংলাদেশের দ্বিতীয় ম্যাচ। প্রথম ম্যাচে আফগানিস্তানের কাছে ৪-০ গোলে হেরেছিল বাংলাদেশ। মামুনুলদের শেষ ম্যাচটি ২৮ ডিসেম্বর, ভুটানের বিপক্ষে।






মন্তব্য চালু নেই