মেইন ম্যেনু

বাংলাদেশে ২০ লাখ ডলার বিনিয়োগ করবে ‘আবিষ্কার’

বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান ‘আবিষ্কার’ বাংলাদেশে যাত্রা শুরু করেছে। বাংলাদেশে ক্লাউডওয়েল লি. এর সঙ্গে যৌথভাবে ২০ লাখ মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করবে প্রতিষ্ঠানটি।

পেওয়েল নামে পরিচিত বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠান ক্লাউডওয়েল, টেলিকম অপারেটর ও মোবাইল ফিনান্সিয়াল সার্ভিস প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানে এজেন্টভিত্তিক পেমেন্ট সেবা দিয়ে থাকে। আর দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় বিনিয়োগে বিশেষভাবে নজর দিয়ে থাকে আবিষ্কার ফ্রন্টিয়ার ফান্ড (এএফএফ)। আবিষ্কার ফ্রন্টিয়ার ফান্ড শ্রীলংকা, বাংলাদেশ, ইন্দোনেশিয়া এবং বাংলাদেশের বাজারে বিনিয়োগ করে থাকে। এএফএফ’র পক্ষ থেকে এটি তৃতীয় বিনিয়োগ।

এএফএফ’র সঙ্গে বিনিয়োগে ক্লাউডওয়েল এর প্রবৃদ্ধি ও দেশব্যাপী এর সেবার পরিসর বৃদ্ধি পাবে বলে আশা করছে প্রতিষ্ঠানটি।

২০১২ সালের নভেম্বরে প্রতিষ্ঠিত পেওয়েল বিটুসি (বিজনেস টু কাস্টমার) প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে ইউটিলিটি, টেলিকম, ফিনান্সিয়াল সার্ভিস, ট্রান্সপোর্ট, রিটেইল এবং ই-কমার্স এর মতো পেমেন্ট সলিউশন দিয়ে থাকে। কোম্পানির তথ্যমতে, দেশের ৩৪ জেলায় ৫ হাজারের বেশি রিটেইলার রয়েছে তাদের।

আবিষ্কারের সঙ্গে অংশীদারিত্ব সম্পর্কে ক্লাউডওয়েল এর চেয়ারম্যান ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) আনিসুল ইসলাম বলেন, আবিষ্কারের সঙ্গে বিনিয়োগের ফলে পেওয়েল বাংলাদেশে তাদের বাজার আরো সম্প্রসারণ করবে। দুই বছরের মধ্যে ৩০ হাজার এজেন্টের একটি নেটওয়ার্ক তৈরির পরিকল্পনা রয়েছে তাদের।

এ সম্পর্কে ক্লাউডওয়েল এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ফাইজুল হামিদ বলেন, সবার কাছে পেমেন্ট সেবাকে সহজতর করতে পেওয়েল একটি প্লাটফর্ম হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়। ২০১২ সালে নগদ লেনদেন ভিত্তিক বাজারে মোবাইল টপ-আপ, বিল পেমেন্ট, মানি ট্রান্সফারের মতো সেবা নিয়ে যাত্রা শুরু করে প্রতিষ্ঠানটি।

তিনি বলেন, এই মুহূর্তে আবিষ্কার ফ্রন্টিয়ার ফান্ডের সঙ্গে আমাদের অংশীদারিত্ব বাংলাদেশে রিটেইল ডিস্ট্রিবিউশন নেটওয়ার্কের জন্য একটি বড় পদক্ষেপ।

বাংলাদেশে বিনিয়োগ সম্পর্কে আবিষ্কারের অংশীদার সঞ্চয়ন চক্রবর্তী জানান, একদল দক্ষ উদ্যোক্তা নিয়ে ডিজিটাল অর্থনীতির গতি বৃদ্ধি ও ক্রমবর্ধমান মোবাইল ফিনান্সিয়াল সেবার পরিধি বাড়াতে ক্লাউডওয়েল কাজ করে থাকে। বাংলাদেশে আমরা প্রথমবারের মতো ক্লাউডওয়েল এর সঙ্গে বিনিয়োগ করতে পেরে আনন্দিত। আশা করছি, বাংলাদেশের এসএমই ইকোসিস্টেম তৈরিতে আমরা বড় ধরনের ভ’মিকা রাখতে পারব।






মন্তব্য চালু নেই