মেইন ম্যেনু

বাংলাদেশে ৪৩০ কোটি ডলার বিনিয়োগ করবে স্কাইপাওয়ার

সৌরশক্তি উৎপাদনে বিশ্বের বৃহত্তম এবং সবচেয়ে সফল কোম্পানিগুলোর একটি স্কাইপাওয়ার গ্লোবাল বাংলাদেশের সৌরবিদ্যুৎ খাতে ৪.৩ বিলিয়ন (৪৩০ কোটি) মার্কিন ডলার বিনিযয়োগ করবে।

স্থানীয় সময় শুক্রবার নিউইয়র্কের হোটেল ওয়াল্ডর্ফ এস্টোরিয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বিজনেস কাউন্সিল ফর ইন্টারন্যাশনাল আন্ডারস্ট্যানডিং (বিসিআইইউ)-এর এক গোলটেবিল আলোচনাকালে কানাডাভিত্তিক বহুজাতিক এই কোম্পানির প্রেসিডেন্ট ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কেরি এডলার একথা ঘোষণা করেন।

প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম জানান, আগামী চার বছরের মধ্যে বাংলাদেশে ২০০০ মেগাওয়াট সৌরবিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য একটি প্লান্ট স্থাপনে বিনিয়োগ করতে কোম্পানিটি সম্মত হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর জন্মস্থান টুঙ্গীপাড়ায় কোম্পানির কার্যালয় স্থাপন করা হবে। কোম্পানি ৪২ হাজার লোকের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করবে। এছাড়া, এই কোম্পানি বাংলাদেশের ১৫ লাখ বাড়িতে ব্যবহারের জন্য বাতি দেবে।

সভায় প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশে বিনিয়োগ করার জন্য ব্যবসায়ীদের আমন্ত্রণ জানিয়ে বাংলাদেশের বিকাশমান বিনিয়োগ সম্ভাবনাগুলোর কথা তুলে ধরেন।

তিনি যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে বাংলাদেশের পণ্যের শুল্ক ও কোটামুক্ত প্রবেশাধিকার পেতে সমর্থন করার জন্য বিজনেস কাউন্সিল ফর ইন্টারন্যাশনাল আন্ডারস্ট্যানডিং (বিসিআইইউ) এর প্রতি আহ্বান জানান।

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম আলোচনায় অংশ নেন।

বৈঠকে বিশ্বের ২৭টি বৃহৎ কোম্পানির প্রধান ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

কাউন্সিল ফর ইন্টারন্যাশনাল আন্ডারস্ট্র্যানডিং (বিসিআইইউ)- এর প্রেসিডেন্ট ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা পিটার জে টিচানস্কি, স্কাইপাওয়ার গ্লোবাল-এর প্রেসিডেন্ট ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কেরি এডলার, আমেরিকান পাওয়ার কর্পোরেশনের ভাইস প্রেসিডেন্ট সঞ্জয় আগরওয়াল, জিপায়ার ম্যানেজমেন্টের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা টমাস বেরি, মাস্টারকার্ড ইন্টারন্যাশনালের এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট এডওয়ার্ড ব্রান্ডট এবং এক্সেলারেট এনার্জির প্রধান উন্নয়ন কর্মকর্তা ড্যানিয়েল বাসটোস গোলটেবিল আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী, প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী নুরুল ইসলাম, এলজিআরডি মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা ড. মশিউর রহমান ও ড. গওহর রিজভী, বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এম জিয়াউদ্দিন, জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ড. আবদুল মোমেন ও ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্টিজের সভাপতি আবদুল মাতলুব আহমদ অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন।






মন্তব্য চালু নেই