মেইন ম্যেনু

বাংলাদেশ থেকে ৬ দেশে চলবে যাত্রীবাহী জাহাজ

বাংলাদেশ থেকে উপকূলবর্তী ৬ দেশে ও বঙ্গোপসাগরের বিভিন্ন এলাকায় জাহাজে যাতায়াত করতে পারবেন যাত্রীরা। বছরে ৩২০ দিন সমুদ্র উপকূলবর্তী দেশগুলোতে মোট ১০০ দিন ট্রিপ দেবে যাত্রীবাহী জাহাজ।

মঙ্গলবার বিকেলে সচিবালয়ে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশন (বিএসসি) ও আফরোজ শিপিং লাইনের মধ্যে এ বিষয়ে একটি সমঝোতা স্মারক সই হয়।

এ চুক্তির ফলে বাংলাদেশ থেকে সৌদি আরব, মালদ্বীপ, শ্রীলঙ্কা, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া, থাইল্যান্ড ও বঙ্গোপসাগরের বিভিন্ন এলাকায় যাতায়াত করবে যাত্রীবাহী জাহাজ। চলতি বছর থেকেই এ বিষয়ে প্রাথমিক কার্যক্রম শুরু হবে। ২০১৬ সালে জাহাজ কিনবে আফরোজ শিপিং লাইন। ২০১৮ সাল থেকে যাত্রীরা জাহাজে করে সমুদ্র উপকূলবর্তী দেশগুলো ভ্রমণ করতে পারবেন। ২০২০ সালে বাংলাদেশ এক্ষেত্রে বড় একটি সমুদ্রশক্তি হিসেবে পরিচিত পাবে। জাহাজগুলো একই সঙ্গে প্রমোদতরী ও যাত্রীবাহী জাহাজের ভূমিকায় থাকবে। অনেকেই এতে আগ্রহী হবে বলে চুক্তি সই অনুষ্ঠানে জানানো হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাহজাহান খান। বিএসসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক কমোডর হাবিবুর রহমান ভূইয়া এবং আফরোজ শিপিং লাইনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শাহ মমিনুল ইসলাম চৌধুরী নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে সমঝোতা স্মারকে সই করেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নৌ-পরিবহণ মন্ত্রণালয়ের সচিব শফিক আলম মেহেদী ও বাংলাদেশে নিযুক্ত ব্রিটিশ ডেপুটি হাই-কমিশনার মার্ক ক্লাটন।

এ সময় শাহজাহান খান বলেন, ‘এক সময় নৌ-পথে হজে যাওয়ার পরিস্থিতি তৈরি হবে। বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতিতে এ উদ্যোগ নতুন একটি সম্ভাবনা। এ সমঝোতার ফল অবশ্যই ভালো হবে ।এটি একটি ঐতিহাসিক সমঝোতা।’

এ ক্ষেত্রে পাশের দেশ ভারতও সঙ্গে থাকবে বলে জানান নৌ-মন্ত্রী।






মন্তব্য চালু নেই