মেইন ম্যেনু

বাংলাদেশ পিছিয়ে থাকবে না : শামসুল হুদা

সাবেক প্রধান নিবার্চন কমিশনার ড. এ টি এম শামসুল হুদা বলেছেন, ‘ক্ষুদ্র রাজনৈতিক স্বার্থের ঊর্ধ্বে উঠে দেশকে ভালোবেসে কাজ করলে বাংলাদেশ পিছিয়ে থাকতে পারে না।’

জাতীয় প্রেসক্লাবে শুক্রবার দুপুরে সাবেক অর্থমন্ত্রী সাইফুর রহমানের ষষ্ঠমৃত্যুবার্ষিকীর আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানের আয়োজন করে দুররে সামাদ ও সাইফুর রহমান ফাউন্ডেশন।

এতে সভাপতিত্ব করেন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান এম নাসের রহমান।

বাংলাদেশের অর্থনীতির আর্থিক সু-ব্যবস্থাপনার প্রধান স্থপতি সাইফুর রহমান এ মন্তব্য করে শামসুল হুদা বলেন, ‘দেশের প্রতি ভালোবাসা, দেশের ভালো করা এ বিষয়টা যদি আমাদের দেশের সকল রাজনীতিবিদদের মধ্যে থাকতো তাহলে বাংলাদেশের এই অবস্থা হতো না। দেশ আরও অগ্রসর হত।’

তিনি বলেন, ‘ব্যাংক সেক্টরের শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনেন সাইফুর রহমান। তিনি বাংলাদেশের অর্থনীতির জন্য যা করেছেন তা এতো গুরুত্বপুর্ণ যে তার নেওয়া পদক্ষেপগুলো আজ রাজনৈতিক বিরোধীতার মুখেও কেউ ফেলে দিতে পারছে না।’

দেশের বর্তমান অর্থনীতি প্রসঙ্গ টেনে শামসুল হুদা বলেন, ‘একদিনে হঠ্যাৎ করে কোনো দেশের অর্থনীতি দাঁড়িয়ে যেতে পারে না। এরশাদের আমলের শেষ দিকে উন্নয়নের গ্রোথ ছিল মাত্র দুই ভাগ। তাকে সাইফুর রহমান ৬ ভাগে উন্নীত করেন। বর্তমানে সেই ধারা অব্যাহত রয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘বর্তমানে দেশের অর্থনীতি একটা খাদের মধ্যে রয়েছে। এখান থেকে বের হয়ে আসতে হবে।’

সাবেক এই নিবার্চন কমিশনার বলেন, ‘রাজনীতির জন্য যেটা প্রয়োজন সেটা সব সময় অর্থনীতির জন্য ভালো হয় না। রাজনীতি ও অর্থনীতি যখন মুখোমুখি দাঁড়িয়ে যায়, সেখানে একজন রাজনীতিক; একজন সংসদ সদস্য কতদূর পর্যন্ত সেক্রিফাইস করতে পারবেন।’

বাংলাদেশের রাজনীতিতে গোষ্ঠিগত ও ব্যক্তিগত স্বার্থের সংঘাত রয়েছে উল্লেখ করে হুদা বলেন, ‘সংসদ সদস্যদের গাড়ি দেওয়ার বিষয়ে জিয়াউর রহমানের ক্যাবিনেট থেকে বিরোধীতা করেন সাইফুর রহমান। কিন্তু এরশাদ আমলে সংসদ সদস্যদের গাড়ি দেওয়া শুরু হয়।’

বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গর্ভনর সালেহ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘সাইফুর রহমান কখনও রাজনৈতিক কারণে বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিচালনায় হস্তক্ষেপ করেননি। তার কাছে রাজনৈতিক পরিচয় বড় ছিল না। তিনি মেধাকে গুরুত্ব দিয়েছেন।’

বিগত মহাজোট সরকার ও বর্তমান সরকারের আমলে দেশের সব উন্নয়ন হয়েছে, দেশ নিম্ম মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছে; এটা ভ্রান্ত ধারণা ছাড়া আর কিছু না উল্লেখ করে সাবেক এই গর্ভনর বলেন, ‘এটা শুরু হয়েছিলো সাইফুর রহমানের হাত ধরে। যার সুফল এখন আসতে শুরু করেছে।’

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন সাবেক অর্থ সচিব জাকির আহমদ খাঁন, ছিদ্দিকুর রহমান, রেড ক্রিসেন্টের সাবেক চেয়ারম্যান হাফিজ আহমেদ মজুমদার প্রমুখ।






মন্তব্য চালু নেই