মেইন ম্যেনু

বাংলাদেশ-ভারতের সম্পর্ক বিনষ্ট করবে রামপাল : রব

বাগেরহাটের রামপালে কয়লাভিত্তিক তাপ-বিদ্যুৎকেন্দ্র বাংলাদেশ ও ভারতের সম্পর্ক বিনষ্ট করবে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি) সভাপতি আ স ম আবদুর রব।

শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে জেএসডি আয়োজিত এক সমাবেশ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

আবদুর রব বলেন, রামপালের বিদ্যুৎ প্রকল্প নিয়ে দুই দেশের মানুষের মাঝেই উদ্বেগ দেখা দিয়েছে। এ প্রকল্প বাতিলের দাবি উঠছে। ইউনেস্কোসহ সারা বিশ্বের পরিবেশবাদীরাও এ প্রকল্প বন্ধের আবেদন জানিয়েছে।

তিনি বলেন, সরকার যদি ক্ষমতার মোহগ্রস্ততায় একগুয়েমি বা জেদ করে এ প্রকল্প থেকে সরে না দাঁড়ায় তাহলে বাংলাদেশের জনগণের মাঝে ভারতবিরোধী মনোভাব বেড়ে উঠবে, যা দুেই দেশের সম্প্রীতি ও সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ককে বিনষ্ট করবে।

আমরা ভারত সরকারকেও এ প্রকল্প থেকে সরে আসার অনুরোধ জানাবো উল্লেখ করে তিনি বলেন, এ প্রকল্প বাতিল করে সরকার দ্রুত দেশের পক্ষে অবস্থান নেবে- এটাই দেশবাসীর প্রত্যাশা।

স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানগুলোকে দলের অঙ্গ শাখায় পরিণত করা হচ্ছে জানিয়ে রব বলেন, জনগণের প্রতিষ্ঠান দখল করা হচ্ছে। বিদ্যুৎ-গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির অপচেষ্টা বন্ধ করতে হবে। এছাড়া রাষ্ট্রের উচ্চপর্যায় থেকে তৃণমূল পর্যন্ত ঘুষ-দুর্নীতি-নিয়োগ ও দখল বাণিজ্যসহ হত্যা, গুম, খুন, অপহরণ করে দেশকে রাজনৈতিকভাবে দেউলিয়া করে দিচ্ছে। দেশবাসীকে এসবের বিরুদ্ধে দ্রুত প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে।

জেলা পরিষদ নির্বাচনের আগে পরিষদের ক্ষমতা ও করণীয় নির্ধারণ, রামপাল থেকে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের স্থান পরিবর্তন, সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ নির্মূলে জাতীয় ঐক্য গঠন ও গ্যাস-বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির অপতৎপরতা বন্ধের দাবিতে সারা দেশে এ কর্মসূচি পালন করে দলটি।

জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে কেন্দ্রীয় কর্মসূচিতে সভাপতিত্ব করেন দলটির সভাপতি আ স ম আবদুর রব। সমাবেশে আরো উপস্থিত ছিলেন দলটির সাধারণ সম্পাদক আবদুল মালেক রতন, এম এ গোফরান, আতাউল করিম ফারুক, মো. সিরাজ মিয়া, মিসেস তানিয়া ফেরদৌসী, শহীদ উদ্দিন মাহমুদ স্বপন প্রমুখ।

সমাবেশ শেষে একটি মিছিল জাতীয় প্রেসক্লাব থেকে শুরু করে বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এসে শেষ হয়।






মন্তব্য চালু নেই