মেইন ম্যেনু

বাংলাদেশ ভ্রমণে আবারও যুক্তরাষ্ট্রের সতর্কবার্তা

বাংলাদেশে ভ্রমণের বিষয়ে আবারও নিজেদের নাগরিকদের ওপর সতর্কতা জারি করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এ সতর্কবার্তা ২০১৬ সালের ১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত কার্যকর থাকবে বলেও ওই বার্তায় জানানো হয়েছে। মঙ্গলবার মার্কিন স্টেট ডিপার্টমেন্ট তাদের ওয়েবসাইটে এ সতর্কতা জারি করে।

গত ২৮ সেপ্টেম্বর ইতালীয় নাগরিক তাবেলা সিজার এবং ৩ অক্টোবর জাপানি নাগরিক কুনিও হোশি হত্যাকাণ্ডের পর ভ্রমণ সতর্ককতা জারি করেছিল মার্কিন দূতাবাস। পরে ১৭ অক্টোবর দ্বিতীয় দফায় সতর্কতা জারি করা হয়।

মঙ্গলবার জারি করা সতর্কতায় বলা হয়, ‘বিশাল জমায়েতসহ পৃথকভাবে বিদেশিদের ওপর সন্ত্রাসী হামলা হতে পারে বলে নির্ভরযোগ্য সূত্রে খবর রয়েছে। গত সেপ্টেম্বর থেকে বাংলাদেশে পৃথকভাবে বিদেশি ও সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ওপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটেছে। এর মধ্যে ২৮ সেপ্টেম্বর একজন ইতালীয় নাগরিক, ৩ অক্টোবর এক জাপানি নাগরিক হত্যা এবং ২৪ অক্টোবর শিয়া সম্প্রদায়ের একটি উৎসবে বোমা হামলা চালানো হয়েছে। ইসলামিক স্টেট পৃথকভাবে তিনটি হামলারই দায় স্বীকার করেছে। এ ছাড়া চলতি বছর লেখক-প্রকাশকদের ওপর হুমকি ও হামলার ঘটনা ঘটেছে। এদের মধ্যে মার্কিন নাগরিকত্ব পাওয়া ব্লগারকেও হত্যা করা হয়েছে। মার্কিন সরকারের হিসেবে বাস্তব ও বিশ্বাসযোগ্যভাবে সন্ত্রাসীদের হুমকি বহাল রয়েছে এবং আরো হামলা হতে পারে।’

জারি করা বার্তায় বাংলাদেশে ভ্রমণরত কিংবা অবস্থানরত মার্কিন নাগরিকদের পূর্বসতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেওয়া, নিজেদের নিরাপত্তার ব্যাপারে সতর্ক থাকার পাশাপাশি স্থানীয় নিরাপত্তা পরিস্থিতির পরিবর্তনের ব্যাপারে সতর্ক থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। মার্কিন দূতাবাসে কর্মরত কর্মকর্তা ও তাদের পরিবারের সদস্যদের জনাকীর্ণ এলাকায় যাতায়াত সম্পূর্ণ নিষেধ করা হয়েছে। তাদের হেঁটে, মোটরসাইকেল, সাইকেল, রিকশাসহ অন্যান্য খোলা যানবাহনে চলাচলেও নিষেধ করা হয়েছে। এ ছাড়া আন্তর্জাতিক হোটেলসহ যেসব স্থানে বিদেশিদের গণজমায়েত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে, সেসব স্থানে যেতেও মার্কিন নাগরিকদের নিষেধ করা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই