মেইন ম্যেনু

বাংলার ক্রিকেটের মসনদে গাঙ্গুলি

সবকিছু আগ থেকেই নির্ধারিত ছিল। শুধু আনুষ্ঠানিকতাই বাকি ছিল। বৃহস্পতিবার হয়ে গেল সেই আনুষ্ঠানিকতাও। ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অব বেঙ্গলের (সিএবি) প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব গ্রহণ করলেন প্রিন্স অব কলকাতা সৌরভ গাঙ্গুলি। বৃহস্পতিবার সিএবি এর বিশেষ সাধারণ সভায় সর্বসম্মতিক্রমে সৌরভকেই জগমোহন ডালমিয়ার উত্তরসূরি হিসেবে বেছে নেন সদস্যরা।

গত ২০ সেপ্টেম্বর জগমোহন ডালমিয়ার মৃত্যুর পর বাংলার ক্রিকেটের মসনদে কে বসবেন তা নিয়ে জল্পনা শুরু হওয়ার আগেই সৌরভকে সিএবি প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করে সকলকে চমকে দিয়েছিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু সিএবির মতো স্বায়ত্তশাসিত সংস্থায় মুখ্যমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ নিয়ে কিছুটা জলঘোলা হলেও মমতার সিদ্ধান্তকেই সম্মান জানালেন সিএবি-র সদস্যরা। ফলে আগামী বছরের জুন পর্যন্ত সিএবির প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব ন্যস্ত থাকবে ভারতের সর্বকালের অন্যতম সেরা অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলির হাতে।

গত জুলাই থেকে যুগ্ন সেক্রেটারির দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন সৌরভ গাঙ্গুলি। এবার সেই পদে বসতে যাচ্ছেন ডালমিয়ার পুত্র অভিষেক। সুবির গাঙ্গুলিও থাকবেন যুগ্ন সেক্রেটারি হিসেবে। বিশ্বরূপ দে ট্রেজারার হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।

প্রয়াত ডালমিয়ার হাত থেকে দায়িত্ব নিচ্ছেন সৌরভ গাঙ্গুলি

প্রয়াত ডালমিয়ার হাত থেকে দায়িত্ব নিচ্ছেন সৌরভ গাঙ্গুলি

জগমোহন ডালমিয়ার শূন্যস্থান পূরণ করা সহজ নয় সেটা মানছেন সৌরভ গাঙ্গুলি। তবে ডালমিয়ার পুত্র অভিষেক পাশে থাকায় ভরসা পাচ্ছেন দাদা। গত মাসে এ সম্পর্কে মহারাজ বলেন, ‘আমি জানি ডালমিয়ার শূন্যস্থান পূরণ করা কতটা কঠিন। তবে আমি খুশি, এ কাজে সহযোগিতার জন্য অভিষেককে পাচ্ছি।’

সিএবির প্রেসিডেন্ট হিসেবে নিন্দুকরা গাঙ্গুলিকে নিয়ে প্রতিনিয়ত পুঙ্খানুপুঙ্খ বিচার বিশ্লেষণ করবেন। নিজের বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারে একবার সৌরভ গাঙ্গুলিকে সাংবাদিকরা বলেছিলেন, আপনাকে স্ক্যানারের নিচে রাখা হয়েছে। চটপটে তিনি উত্তর দিলেন, আমি সবসময়ই স্ক্যানারের নিচে থাকি। আগামী দিনগুলোও এর ব্যতিক্রম হবে না। সিএবির প্রেসিডেন্ট হিসেবে প্রতিনিয়ত সূক্ষ্ম বিচার বিশ্লেষণের মুখে পড়তে যাচ্ছেন কলকাতার মহারাজ।






মন্তব্য চালু নেই