মেইন ম্যেনু

বাইরে থেকে হ্যাক করে চলন্ত জিপ খাদে

বাজার থেকে ১৪ লাখ ‘স্পোর্ট ইউটিলিটি ভেইকল’ গ্র্যান্ড চেরোকি ফেরত নিচ্ছে মার্কিন অটোমোবাইল নির্মাতা জিপ। গ্র্যান্ড চেরোকির ইন্টারনেট সংযোগ নির্ভর এন্টারটেইনমেন্ট সিস্টেম হ্যাক করা সম্ভব এমন প্রমাণ পাওয়ার পর এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্মাতা প্রতিষ্ঠানটি। সম্প্রতি দুই সাইবার নিরাপত্তা গবেষক গাড়িটিতে নিরাপত্তা ব্যবস্থার দুর্বলতা চিহ্নিত করেন।

বিবিসি জানিয়েছে, বহুজাতিক অটোমোবাইল নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ফিয়াট ক্রাইসলার অটোমোবাইলের মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান জিপ। গ্র্যান্ড চেরোকি গাড়িগুলোর সফটওয়্যার আপডেট করার মাধ্যমে সাইবার নিরাপত্তা সমস্যার সমাধান করার জন্য গাড়িগুলো স্বেচ্ছায় ফেরত নেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে ফিয়াট ক্রাইসলার।

গ্র্যান্ড চেরোকিতে নিরাপত্তা ব্যবস্থার দুর্বলতা জনসমক্ষে নিয়ে এসেছেন সাইবার নিরাপত্তা গবেষক চার্লি মিলার এবং ক্রিস ভালাসেক। চলন্ত অবস্থাতেই দুর থেকে গাড়িটির ইন্টারনেট সংযোগ নির্ভর এন্টারটেইনমেন্ট সিস্টেম হ্যাক করে পুরো গাড়ির নিয়ন্ত্রণ বেদখল করে নেওয়া সম্ভব বলে প্রমাণ করেন তারা।

বিলেতি সংবাদমাধ্যম স্কাই নিউজ জানিয়েছে, হ্যাকারদ্বয় ওই জিপ চলন্ত অবস্থায় হ্যাক করে তা রাস্তার পাশে খাদে নিয়ে ফেলেন। এতে অবশ্য খেপেছেন ফিয়াট-ক্রাইসলারের কর্তাব্যক্তিরা। দুই সাইবার নিরাপত্তা গবেষকের কর্মকাণ্ড ‘বেআইনী ও অপরাধমূলক’ বলে মন্তব্য করা হয়েছে প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে।

ওই দুই গবেষকের কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট ওয়্যার্ড ডটকম এক প্রতিবেদন প্রকাশ করার পর আলোচনার সৃষ্টি হয়ে গাড়িটির নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে।

দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন গাড়ির নিরাপত্তা এবং নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা যাচাই করার পেশায় জড়িত আছেন মিলার ও ভাসেক। অগাস্ট মাসের ডেফ কন হ্যাকার কনফারেন্সে গ্র্যান্ড চেরোকির নিরাপত্তা ব্যবস্থার খুঁত নিয়ে বিস্তারিত জানানোর কথা রয়েছে ওই দুই নিরাপত্তা গবেষকের।



(পরের সংবাদ) »



মন্তব্য চালু নেই