মেইন ম্যেনু

বাচ্চারাও ভুগতে পারে উচ্চ রক্তচাপে

আগে ধারণা ছিল, একটা বয়স পার হওয়ার পর কারো উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা হতে পারে। কিন্তু সে ধারণা পাল্টে আজ নতুন আশঙ্কা জুড়ে দিয়েছে। আজকাল ‍শিশুরাও ভুগছে উচ্চ রক্তচাপের সমস্যায়।

লবণযুক্ত ফাস্ট-ফুড বেশি খাওয়া, ফলমূল ও শাকসবজি এড়িয়ে চলা, খেলাধুলা কম করা এবং স্থুলকায় শিশুদের উচ্চ রক্তচাপে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বেশি। এছাড়া যেসব শিশু সারাদিন বসে কম্পিউটার গেমস খেলতে বেশি পছন্দ করে, শারীরিক পরিশ্রমে আগ্রহী নয় এমন বাচ্চাদেরও এই সমস্যা হতে পারে।

বর্তমানে আমাদের শিশুদের মধ্যে ৩ থেকে ৪ শতাংশ উচ্চ রক্তচাপে ভুগছে। এই সমস্যা থেকে সৃষ্টি হচ্ছে অন্যান্য রোগ। শারীরিকভাবে দুর্বল যেসব শিশু দিনে দুই ঘণ্টা বা তার চেয়ে বেশি সময় টিভি বা কম্পিউটারের মনিটরের সামনে কাটায়, তাদের উচ্চ রক্তচাপের আশঙ্কা অন্যদের তুলনায় প্রায় ৩ দশমিক ৪ গুন বেশি। আক্রান্ত শিশুদের মধ্যে পাঁচ বছর বয়সী শিশুরাও রয়েছে।

সম্প্রতি ইন্ডিয়ান জার্নাল অব এন্ডো-ক্রাইনোলজি অ্যান্ড মেটাবোলিজম সাময়িকীতে অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অব মেডিকেল সায়েন্সেস (এআইআইএমএস) এর একটি গবেষণা প্রকাশ করা হয়েছে। রিপোর্টে ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লির ১০ হাজার শিশুর ওপর গবেষণা চালানো হয়। এ রিপোর্টে বলা হয়েছে উচ্চ রক্তচাপে আক্রান্ত শিশুদের প্রায় ৭০ শতাংশই প্রাপ্তবয়স্ক অবস্থায় রোগটি বহন করবে।

উচ্চ রক্তচাপ এবং অন্যান্য হৃদরোগের আশঙ্কা এড়ানোর জন্য শিশুদের শারীরিকভাবে সক্রিয় রাখার ওপর জোর দেওয়া হয়েছে এই গবেষণা প্রতিবেদনটিতে। শারীরিক নিষ্ক্রিয়তা হৃদরোগের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িত এবং দুনিয়াজুড়েই এটা মৃত্যুর চতুর্থ বড় কারণ হিসেবে বিবেচিত। প্রতিবছর প্রায় ৩২ লাখ মানুষ হৃদরোগজনিত নানা কারণে মারা যায়।

উচ্চ রক্তচাপকে একটি নীরব ঘাতক। আপনার শিশুর সুন্দর ভবিষ্যতের আশায় এর আশঙ্কা থেকে মুক্ত করতে হবে।






মন্তব্য চালু নেই