মেইন ম্যেনু

বাচ্চা প্রসবের আগ মুহূর্তে হাসপাতালেই সহবাস!

প্রেমিক-প্রেমিকা শব্দ যুগলে মিশে আছে দুটি মানুষের অবাক্ত অনুভুতিগুলো। ভালবাসার অনুভুতি এমনি স্রোতের গতিতে চলে যা অন্য কোন নিয়ম-নীতির ধার ধারে না। নতুন অতিথি আগমনের সন্ধিক্ষনে ছটফট করছে প্রেমিকা। এমন সময় হাসপাতালের বেডেই ভালোবাসার চূড়ান্ত মিলনে মেতে ওঠে ওই প্রেমিকযুগল।

ঘটনাটি ঘটেছে ইংল্যান্ডের ব্রিস্টল শহরের সেন্ট মাইকেল হাসপাতালে। হাসপাতালের এক পরিচ্ছন্নতাকর্মী বিষয়টি টের পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতালের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে জানান। প্রেমিকযুগলকে হাতেনাতে ধরে ফেলেন কর্মকর্তারা। তবে ওই হাসপাতালেন নীতিতে রয়েছে, কোনো দম্পতি বা যুগল যৌনসঙ্গম করলে তাদের বাধা দেওয়ার কোনো অধিকার নেই কর্মকর্তাদের। তাই এ কর্মের জন্য তাদের কোনো সাজাও দেওয়া হয়নি।

হাসপাতাল সূত্র থেকে জানা যায়, হাসপাতালে আসা অন্য রোগীরাও বিষয়টি বুঝতে পেরেছিল। হাসপাতালে তাদের এ কাণ্ডজ্ঞানহীন কাজ দেখে অনেকে হতাশাও প্রকাশ করেন। এটা দেখার পর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাদের কাজ চালিয়ে যাওয়ার সময় দেয়।

চিকিৎসকরা বলেন, এ অবস্থায় যৌনমিলন ক্ষতিকর নয়। তবে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ ও পানি ভাঙা থেকে রক্ষা করতে এ সময় এ কাজে নিজেদের বিরত রাখাই ভালো। হাসপাতালের মুখপাত্র জানান, হাসপাতালকর্মীদের কাজ হলো কোনো রোগী যেন অসুবিধায় না পড়েন, সেটা নিশ্চিত করা। সেটাই তিনি সুচারু ও গোপনীয়ভাবে সম্পন্ন করেছেন। তবে এ বিষয়ে অন্য রোগীর কাছ থেকে কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

সূত্র : ডেইলি মেইল






মন্তব্য চালু নেই