মেইন ম্যেনু

‘বাণিজ্যে দেবতার নাম বৈধ’

বাণিজ্যিক উদ্দেশে দেব-দেবীর নাম ব্যবহার না করার আবেদন জানিয়ে করা একটি রিট আবেদন খারিজ করে দিয়েছে ভারতের সর্বোচ্চ আদালত। শুক্রবার প্রধান বিচারপতি এইচ এল দত্ত, বিচারপতি অরুন মিশ্র ও বিচারপতি অমিতাভের বেঞ্চ এটি খারিজ করে দেয়।

আদালত জানিয়েছে, এই দেশে ৩৩ কোটি দেবতা রয়েছে। এটা বিশ্বাসের ব্যাপার। নাগরিকদের যেসব দেব-দেবতায় বিশ্বাস রয়েছে তাদেরকে সেসব দেব-দেবতার নামে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের নাম রাখা থেকে বিরত করা যাবে না।

আবেদনকারীর প্রতি প্রশ্ন ছুড়ে বেঞ্চ বলেন, ‘ একজন ব্যবসায়ী তার দোকানের নাম লক্ষ্মী স্টোর রাখতে পারেন। তিনি কি তার মেয়ের নাম লক্ষ্মী রাখতে পারেন না?’

কোন নামফলকে দেবতার নাম কিংবা পণ্যের প্যাকেটে দেবতার ছবি সংযুক্ত করা থেকে কাউকে বিরত রাখা যাবে না জানিয়ে আদালত বলেন, ‘ আমি এক দেবতার পূজা করতে ভালোবাসি। আমি তার নাম ফলকে লিখতে চাই এবং ওই নিদিষ্ট দেবতার ছবি চাইছি। কিভাবে কেউ আমাকে তার থেকে বিরত রাখতে পারে?’

যিনি দেবতা বালাজির অনুসারী তিনি চাইলে তার ছেলের নাম বালাজি রাখতে পারেন এবং সেই নামে ব্যবসাও পরিচালনা করতে পারেন।

রিট খারিজের বিষয়ে আবেদনকারীর প্রতি আদালত বলেন,‘ আপনি লোকদের বিশ্বাসের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বিষয় উত্থাপন করেছেন। এই দেশে ৩৩ কোটি দেবতা রয়েছে। আমরা দুঃখিত।’






মন্তব্য চালু নেই