মেইন ম্যেনু

বাতাসের চেয়েও হালকা হবে রাশিয়ান গোয়েন্দা বিমান!

রাশিয়া এমন একটি সামরিক গোয়েন্দা বিমান তৈরীর কাজে হাত দিয়েছে, দেশটির দাবি এ বিমানটি হবে বাতাসের চেয়েও হালকা! সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে ২০১৮ সালের মধ্যেই কাজের উপযোগী হবে এ বিমান। ১৩০ মিটার দীর্ঘ এ বিমানের নাম আটলান্ট।

২০০ সেনা অথবা ৬০ টন জিনিস বহনে সক্ষম এই উড়নতুবড়ি ঘণ্টায় ৮৬ মাইল বেগে ছুটতে পারবে এবং এর টেক অফ ও অবতরণের জন্য কোনও রানওয়েরও প্রয়োজন হবে না। হোভারক্র্যাফ্ট ও এয়ারশিপের প্রযুক্তির সংমিশ্রণে তৈরি অ্যাটলান্ট হতে যাচ্ছে রাশিয়ান গোয়েন্দাদের জন্য একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ।

অ্যাটলান্টের দুটি মডেল তৈরি হচ্ছে। একটি মডেল আকারে ছোট কিন্তু গতিতে দ্রুত। সেটি ১৬ টন জিনিস বহন করতে পারলেও, তার গতিবেগ ঘণ্টায় ১০৫ মাইল। তাপমাত্রা মাইনাস ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে নেমে গেলেও কোনও সমস্যা নেই। সেখানেও দিব্যি থাকতে পারে অ্যাটলান্ট। রাশিয়ার কড়া শীতের কথা মাথায় রেখে অ্যাটলান্টকে এভাবে তৈরি করা হচ্ছে।

১৫ মিলিয়ন ডলারের অ্যাটলান্ট ব্যবহার করা হবে রাশিয়ার সেনাবাহিনীতে। কিন্তু কীভাবে তা ব্যবহার করা হবে, সেবিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানানো হয়নি। এর দামও হবে অনেক কম। রাশিয়ার ভারী জিনিস বহনে সক্ষম হেলিকপ্টার Mi-26-এর থেকে প্রায় ৩০% কম দাম হবে অ্যাটলান্টের।






মন্তব্য চালু নেই