মেইন ম্যেনু

বান্দরবানের লামায় ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ ও বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা

শুধু ছাত্র-ছাত্রীদের বিদ্যালয়ে পাঠালে হবেনা, অভিভাবকদেরও সচেতন হতে হবে। বর্তমান সময়ে কর্মমূখী শিক্ষা অতীব প্রয়োজন। লেখাপড়ার পাশাপাশি সংস্কৃতি ও ক্রীড়ার মধ্য দিয়ে অনেক ছেলে মেয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ভূমিকা রাখছে। বার্ষিক ক্রীড়া, সাংস্কৃতিক ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে অত্র স্কুলের শিক্ষার্থীরা আরো বেশী স্কুল মূখী হবে।
২৫ জানুয়ারী সোমবার লামা উপজেলার রুপসীপাড়া ইউনিয়নে শিলেরতুয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বার্ষিক ক্রীড়া, সাংস্কৃতিক ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ও রুপসীপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বাবু ছাচিং প্রু মার্মা।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, লামা রুপসীপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বাবু ছাচিং প্রু মার্মা।
স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি মোঃ রফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, রুপসীপাড়া ইউনিয়নের প্যানেল চেয়ারম্যান ও ৭নং ওয়ার্ড মেম্বার মোঃ শহিদুল ইসলাম, ১নং ওয়ার্ড মেম্বার রমজান আলী, বিশিষ্ট সমাজসেবক বিশ্বজিৎ বড়ুয়া, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অমিরন বড়ুয়া সহ প্রমূখ।
বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সভাপতি মোঃ রফিকুল ইসলাম বলেন, অর্থের অভাবে আর কোন শিক্ষার্থীকে ঝরে পড়তে দেয়া হবেনা। সকলের সহায়তায় স্কুল পরিচালনা কমিটি দরিদ্র শিশুদের লেখাপড়া ব্যয় বহন করবে। অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে আরো বলেন, স্কুলে ছেলে-মেয়ে পাঠানোর দায়িত্ব আপনাদের আর তাদের মানুষ করার দায়িত্ব সরকারের পাশাপাশি বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির। অজয়পাড়া গাঁয়ে পিছিয়ে পড়া ও অনগ্রসর ছাত্র-ছাত্রীদের স্কুলমূখী করতে আগামীতেও এরকম অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে।






মন্তব্য চালু নেই