মেইন ম্যেনু

বাপ-বেটির জন্মদিনে ‘বাঁশি বিলাসে’ প্রতিমন্ত্রী

গত সাতটা বছর ধরে আজকের দিনটা একটু ‘স্পেশাল’ পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলমের কাছে। হবেই বা না কেন? আজ যে তাঁর জন্মদিন। শুধু কি তাঁর? জন্মদিন আজ তাঁর মেয়েরও! তাইতো বাপ-বেটির জন্মদিন উপভোগ করতে শুক্রবার সকালেই তিনি থাইল্যান্ড থেকে উড়ে এসেছেন ঢাকায়।

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারী সিরাজ উদ্দীন জানিয়েছেন, আজ তিনি ঢাকায় তাঁর পরিবারের সঙ্গে অবস্থান করছেন। আগামী রবিবার রাজশাহীর বাঘা-চারঘাটে গিয়ে তাঁর নির্বাচনী এলাকার নেতাকর্মীদের জন্মদিনের শুভেচ্ছা গ্রহণের কথা রয়েছে।

জানা গেছে, বছরের ৩৬৪ দিন প্রতিমন্ত্রী নানা কাজে ব্যস্ত থাকলেও আজকের এই একটি দিন তিনি বরাদ্দ করেন পরিবারের খাতে। এ দিন তিনি পুরোটা সময় পরিবারের সঙ্গে কাটাতে চেষ্টা করেন। বিশেষ করে মেয়ে মারিয়ামকে সময় দেয়ার চেষ্টা করেন সবচেয়ে বেশি। কারণ আজ বাবার সঙ্গে তারও জন্মদিন।

আজ সাত বছরে পা দিল প্রতিমন্ত্রী কন্যা মারিয়াম। আর ৪৫ পেরিয়ে আজ ৪৬-এ পা দিলেন প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।

রাজশাহী-৬ আসনের এই সংসদ সদস্য জানিয়েছেন, জন্মদিন মানেই বিশেষ একটি দিন। আর গত সাত বছর ধরে দিনটি তো আরও বেশি ‘স্পেশাল’হয়ে উঠেছে তাঁর কাছে। সাত বছর আগে তাঁর যে জন্মদিনে মেয়ে মারিয়ামও জন্ম নিয়েছিল, সেটি এখনো পর্যন্ত তাঁর কাছে জন্মদিনের সবচেয়ে সেরা উপহার।

এদিকে বাপ-বেটির জন্মদিন উপলক্ষে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম আজ তার ফেসবুক আইডিতে হাজারো মানুষের শুভেচ্ছায় সিক্ত হয়েছেন। পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীও মেয়ে মারিয়ামের সঙ্গে জন্মদিন উদযানের ছবি আপলোড করেছেন।

ছবিতে প্রতিমন্ত্রীকে তাঁর মেয়ে মারিয়ামের সঙ্গে বাঁশি বাজাতে দেখা যাচ্ছে। জন্মদিনে বাপ-বেটিকে শুভেচ্ছা জানানোয় সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে প্রতিমন্ত্রী। ছবির ক্যাপশনে লিখেছেন, “সবাইকে ধন্যবাদ। ক্ষমা চাই সবাইকে আলাদাভাবে কৃতজ্ঞতা জানাতে না পারার জন্য। দাদার কিনে দেয়া বাঁশি বাজানো চলছে। জন্মদিনটা মারিয়ামের। মা আমার সাত পূর্ণ করছে আজকে। দোয়া করবেন।”

প্রতিমন্ত্রীর এই ছবিতে তামান্না নুসরাত বাবলি নামে একজন মন্তব্য করেছেন, ‘পার্টি চাই পার্টি। আমরা মামনির ও মামনির বাবার জন্মদিনের কেক খেতে চাই।’






মন্তব্য চালু নেই