মেইন ম্যেনু

বাবা বলে রণবীরকে জড়িয়ে ধরল ঐশ্বরিয়ার মেয়ে!

করণ জোহরের ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল (এডিএইচএম)’ ছবিতে ঐশ্বরিয়া আর রণবীর কাপুরের চুমুর দৃশ্য নিয়ে আলোচনা এমনিতেই তুঙ্গে। বিনোদন পত্রিকাগুলোতে কত কত খবর। আজ ঐশ্বরিয়াকে শ্বশুর অমিতাভ বচ্চন চুমুর জন্য বকেন, কাল আবার ঐশ্বরিয়া-অভিষেকের সংসারে ভাঙনের ঝড় লাগে! কিন্তু এসব খবরে যে বলিউডের সুপারস্টারদের কিছুই হয় না তা আবারও প্রমাণ করে দিলেন ঐশ্বরিয়া নিজেই। ফাঁস করে দিলেন এমন গোপন খবর, যেটা রটনার বুদ্ধি হয়তো গসিপ পত্রিকাগুলো এখনো পায়নি।

এডিএইচএম-এর প্রচারণার এক অনুষ্ঠানে ঐশ্বরিয়া বলছিলেন রণবীরের সঙ্গে তাঁর বন্ধুত্বের কথা। জানালেন এই ছবিটি করতে গিয়ে দুজনের মধ্যে বেশ বন্ধুত্ব হয়ে গেছে। তবে গোপন খবরটি তাঁদের বন্ধুত্বের নয়, খবরটি ঐশ্বরিয়ার মেয়ে আরাধ্যকে নিয়ে। এই ছবিটির শুটিংয়েই নাকি রণবীরকে বাবা ডেকেছিল আরাধ্য!

ঐশ্বরিয়া জানান, একেবারেই ভুল করে রণবীরকে বাবা ডেকে ফেলে আরাধ্য। বাবা ডেকে পেছন থেকে রণবীর আঙ্কেলকে জড়িয়েও ধরেছিল সে। তারপর সে কী লজ্জা আরাধ্যের!

ঐশ্বরিয়া বলেন, ‘শুটিংয়ে কদিন আগে একটা দারুণ মিষ্টি জিনিস হয়েছে। আমরা শুটিং করছিলাম। রণবীর আমার পাশেই ছিল‚ আর আরাধ্যর ওকে দেখে কী হাসি! একদিন তো আরাধ্য ওকে বাবা ভেবে পেছন থেকে জড়িয়ে ধরেছিল। আসলে ওই দিন রণবীর যে জ্যাকেটটা পরেছিল, অভিষেকেরও একই ধরনের জ্যাকেট আছে। তার ওপর মাথায় চাপিয়েছিল টুপি। যেটা অভিষেক প্রায়ই পরে। ব্যস আমার মেয়ে তো বাবা ভেবে দৌড়ে গিয়ে জড়িয়ে ধরে।’

ঐশ্বরিয়া বলেন, ‘পরে আমি আরাধ্যর কাছে জানতে চাই‚ তুমি রণবীরকে ‘পাপা’ ভেবে ওকে জড়িয়ে ধরেছিলে, তাই না? তখন ও খুব লজ্জা পেয়ে যায়। আর এর পর থেকে শুটিংয়ে রণবীরকে দেখলেই আরাধ্য লজ্জা পায়। এই ঘটনাটা নিয়ে অভিষেকও মাঝে মাঝে আরাধ্যর সঙ্গে মজা করে।’

হাসতে হাসতেই ঐশ্বরিয়া বলেন, ‘আসলে আরাধ্য রণবীরকে খুব পছন্দ করে। আমি রণবীরকে বলেছি, আমি আরাধ্যর বয়সে অমিতাভজির জন্য পাগল ছিলাম, আর তোমাকে দেখলে আমার মেয়ে লজ্জা পায়।’

ঐশ্বরিয়া জানান, “আরাধ্য প্রথমে রণবীরকে ‘আঙ্কেল’ ডাকত। কিন্তু রণবীর খুব ভাব নিয়ে ওকে ‘আর কে’ ডাকতে বলেছে। প্রথম প্রথম আরাধ্য সেটা পারেনি কিন্তু কদিন আগে দেখি, একি! আরাধ্য রণবীরকে ‘আর কে’ বলেই ডাকছে। আমরা সবাই খুব মজা পেয়েছি।”






মন্তব্য চালু নেই