মেইন ম্যেনু

বালিয়াকান্দির বারুগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয়ে সিঁড়ি ছাড়াই দ্বিতল ভবনের কাজ সম্পন্ন

রাজবাড়ী জেলার বালিয়াকান্দি উপজেলার বহরপুর ইউনিয়নের বারুগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয়ের দ্বিতল ভবনের কাজ সিঁড়ি ছাড়াই সম্পন্ন করেছে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। এ ঘটনায় তদারকি কর্তৃপক্ষের চরম গাফিলতি করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

বারুগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি শফিকুল ইসলাম সাবু জানান, বালিয়াকান্দি উপজেলার বহরপুর ইউনিয়নের বারুগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয়ে ২০১০-২০১১ অর্থবছরে একতলা ভবনের উপরিভাগে উপজেলা পরিষদের বরাদ্দকৃত ২লাখ ৮০ হাজার টাকায় ঠিকাদার হারুন মিস্ত্রি দ্বিতল ভবনের ইটের গাথুনির কাজ করে।

অবশিষ্ট টিন সেড, জানালা, দরজা সহ আনুসঙ্গিক কাজ উপজেলা পরিষদ চলতি বছরে ৯ লাখ ৩ হাজার ৭শ সাতাত্তর টাকা টেন্ডারের মাধ্যমে কাজ দেন ঠিকাদার সাগরকে। ঠিকাদার কাজের শুরুতেই নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহারসহ নির্মান কাজে টিনের ছাউনীর ক্ষেত্রে যে পরিমান লোহার পাতের প্রয়োজন তা ব্যবহার করা হয়নি। ঘরের ভিতরে দাড়ালেই দু,-টিনের মাঝ দিয়ে সূর্যের রশ্মি চোখে পড়ে। দ্বিতল ভবনের উঠার সিঁড়ি পুরোটাই নির্মান করা হয়নি। তাহলে তদারকি কর্তৃপক্ষ উপজেলা প্রকৌশল অধিদপ্তর এলজিইডি দায়িত্ব পালন কি করে হলো এটা তার প্রশ্ন।

তিনি আরও জানান, স্কুলে সাড়ে তিনশত ছাত্র্ছাত্রী রয়েছে। কক্ষ সংকটের কারণে ক্লাসে জায়গা না হওয়ার জন্য দ্রুত ভবন নির্মান করা হয়। কিন্তু সেই ভবনে সিড়ি নির্মান না করেই কিভাবে কাজ সম্পন্ন করলো। এ ঘটনা এলাকায় প্রকাশ পাওয়ায় ব্যাপক চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ মাহবুবুল হক জানান, আমি উপজেলায় যোগদানের পূর্বে এষ্টিমেট করা হয়েছিল। এস্টিমেটে সিড়ি ধরা নেই।






মন্তব্য চালু নেই