মেইন ম্যেনু

২টি ভবন পরিত্যক্ত ঘোষনা, ১টিতে খসে পড়ছে পলেস্তরা

বালিয়াকান্দির সমাধিনগর আয্য সংঘ বিদ্যা মন্দির মাধ্যমিক বিদ্যালয় নানা সমস্যায় জর্জরিত

রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার জঙ্গল ইউনিয়নের সমাধিনগর আয্য সংঘ বিদ্যা মন্দির মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শ্রেণী কক্ষ , শিক্ষক, ফ্যান, কমন রুম, বেঞ্চসহ নানা সংকটসহ সমস্যায় জর্জরিত হয়ে পড়েছে। ২টি ভবন পরিত্যক্ত ঘোষনা ও ১টিতে পলেস্তরা খসে পড়ার কারণে ঝুকি নিয়ে ক্লাস করতে হচ্ছে।

স্কুলের শিক্ষার্থীরা জানায়, কমনরুম, টিউবয়েল, ল্যাট্রিন, পর্যাপ্ত বেঞ্চ না থাকার কারণে চরম ভাবে সমস্যায় পড়তে হয়। সরকার ও জনপ্রতিনিধিরা একটু লক্ষ্য করলে আমাদের সমস্যা লাঘব হবে। পাশেই প্রাথমিক বিদ্যালয় দোতালা ভবন আর আমাদের জরাজীর্ণ অবস্থায় মন খারাপ হয়।

স্কুলের সভাপতি শশধর বিশ্বাস জানান, সমাধিনগর আয্য সংঘ বিদ্যা মন্দির মাধ্যমিক বিদ্যালয়টি ১৯৪০ সালে হিন্দু অধ্যাষিত এলাকার মানুষের শিক্ষা বিস্তারের লক্ষে প্রতিষ্ঠা করা হয়। প্রতিষ্ঠার পর থেকেই শিক্ষা বিস্তারে ব্যাপক ভুমিকা রেখে আসছে। স্কুলটিতে বর্তমানে প্রায় ৫শত শিক্ষার্থী রয়েছে। গত এস,এস,সি পরীক্ষায় ৬৮জন পরীক্ষায় অংশগ্রহন করে ৬৩জন কৃতকায্য হয়।

এদের মধ্যে ৪জন জিপিএ-৫ পায়। প্রায় ৩-৪ বছর ধরে স্কুলের ২টি ভবন পরিত্যক্ত ঘোষনা করা হয়েছে। আরেকটি ভবন ১৯৯২ সালের দিকে নির্মান করা হলেও বর্তমানে বিভিন্ন স্থানে বড় বড় ফাটল ও পলেস্তরা খসে পড়ছে। ঝুকি নিয়েই ভবনে ক্লাস করা হচ্ছে। তবে শিক্ষার্থীরা ওই কক্ষে ক্লাস করতে চায় না। হয়ত এ ভনটিও পরিত্যক্ত ঘোষনা করা ছাড়া উপায় নেই।

এখন একমাত্র ভরসা একটি টিনসেট ঘর। তার অবস্থাও জরাজীর্ণ। স্কুলটিতে শ্রেণী কক্ষ সংকট, বিদ্যুৎ থাকলেও পর্যাপ্ত ফ্যান নেই, বেঞ্চ সংকট, প্রধান শিক্ষক, বিজ্ঞান শিক্ষক, শরীর চর্চা শিক্ষক পদ শুন্য, ছাত্রীদের কমন রুম নেই, ল্যাট্রিন নেই, টিউবয়েল নেইসহ স্কুল টিতে নেই নেই অবস্থা বিরাজ করছে। নেই নেই মধ্যে দিয়ে ১০জন শিক্ষক ও ৩জন চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারী দিয়ে চলছে স্কুলের কার্যক্রম।

স্কুলের শিক্ষক, শিক্ষার্থী, ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ও এলাকাবাসী স্কুলের সমস্যা সমাধানে উপজেলা চেয়ারম্যানসহ শিক্ষা বিভাগের সহযোগিতা কামনা করেছেন।






মন্তব্য চালু নেই