মেইন ম্যেনু

বাল্য বিবাহ প্রতিরোধ করতে হলে পারিবারিক সচেতনতা বাড়াতে হবে

আব্দুর রহমান : সাতক্ষীরায় জীবন দক্ষতার জন্য সংগঠন, আয় ও জ্ঞান বয়ঃসন্ধিকালের উৎপাদক এবং বিলম্বে বিয়ে শীর্ষক জেলা পর্যায়ের কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার দুপুরে সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষে এ কর্মশালায় জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা তারাময়ী মুখার্জী’র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক আবুল কাশেম মোঃ মহিউদ্দিন।

এসময় তিনি বলেন, ‘বাল্য বিবাহ আমাদের সমাজের একটি ভয়াবহ সমস্যা। বিশেষ করে সাতক্ষীরা জেলায় বাল্য বিবাহের হার একটু বেশি। যদিও এখন অনেক কমে গেছে। তারপরেও অন্যান্য জেলার তুলনায় বেশি হচ্ছে। আমরা ছোটবেলায় দেখেছি যে খুব অল্প বয়সে মেয়েদের বিয়ে দেওয়া হতো কিন্তু এখন গ্রামে গিয়ে দেখি সেটা অনেকটা কমে গেছে। যদিও হচ্ছে সেটা ১৫ বা ১৬ বছর বয়সের আগে না। আমরা যদি আরো একটু সচেতনতা বাড়াতে পারি কিংবা শিক্ষার হার বৃদ্ধি করতে পারি তাহলে আর কিছুদিন পর দেখা যাবে ১৮ বছরের আগে কোন মেয়ের বিয়ে হচ্ছে। এজন্য আমাদের পারিবারিক সচেতনতায় প্রধান সহায়ক হিসেবে কাজ করবে।’

কর্মশালায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন এডিএম এস.এম মোস্তফা কামাল, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ আসাদুজ্জামান বাবু, তালা উপজেলা চেয়ারম্যান ঘোষ সনৎ কুমার, পপুলেশন কাউন্সিল এর কান্ট্রি ডিরেক্টর ড. ওবায়দুর রব, সদর উপজেলা নির্বার্হী অফিসার শাহ আব্দুল সাদী, তালা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাহাবুবর রহমান, কালিগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার গোলাম মহিউদ্দিন, সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এম. কামরুজ্জামান, জেলা শিক্ষা অফিসার কিশোরী মোহন সরকার, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান (সদর) কোহিনুর ইসলাম, বালিকা প্রকল্পের প্রোজেক্ট ম্যানেজার জোহানা আহমেদ, এম.আর.ও ইশিতা হক, জেলা প্রতিনিধি আরিফুর রহমান (আরিফ) প্রমুখ। সমগ্র অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সিনিয়র পলিসি এডভাইজার এ.কে.এম জাফর উল্লাহ খান।






মন্তব্য চালু নেই