মেইন ম্যেনু

বাহুবলী টু ছবির জন্য কত টাকা পেয়েছেন কলাকুশলীরা

সারা ভারত জুড়ে চলছে ‘বাহুবলী: দ্য কনক্লুশন’-এর জয়জয়কার। অভূতপূর্ব বাণিজ্যিক সাফল্য পেয়েছে এই ছবি। কিন্তু এই ছবির জন্য কোন অভিনেতা কত টাকা পেলেন, জেনে নিন।

বাহুবলী সিরিজের বহু প্রতীক্ষিত দ্বিতীয় ছবিটি যে বাণিজ্যিক সাফল্যে প্রথম ছবিটিকেও ছাড়িয়ে যাবে সেটা ছবি মুক্তির আগে থেকেই জানা ছিল। যেভাবে শেষ হয়েছিল প্রথম ছবিটি, তাতে দর্শকদের এই ছবি সম্পর্কে কৌতূহল চূড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছয়। কাটাপ্পা কেন বাহুবলীকে খুন করেছিল— এই প্রশ্নের সম্ভাব্য উত্তর নিয়ে জল্পনা চলেছে প্রায় এক বছর ধরে এবং বাহুবলী-ফ্যানেরা অপেক্ষা করেছেন দ্বিতীয় ছবিটির জন্য।

ইতিমধ্যেই ৬০০ কোটি টাকার ব্যবসা করে ফেলেছে দ্বিতীয় ছবিটি। খুব তাড়াতাড়িই এ পর্যন্ত ভারতীয় ছবির সর্বোচ্চ বক্স অফিস কালেকশনের রেকর্ডটি ‘পিকে’-র থেকে ছিনিয়ে নিতে চলেছে বাহুবলী টু। প্রযোজক সংস্থা ১০০০ কোটি টাকার বাণিজ্য আশা করছে বলেও জানা গিয়েছে। কিন্তু এত টাকা আয় করল যে ছবি, সেই ছবির অভিনেতা-অভিনেত্রীরা কত টাকা পেলেন?

মুম্বইয়ের একটি গসিপ ওয়েবসাইটের প্রতিবেদন অনুযায়ী, সবচেয়ে বেশি টাকা পেয়েছেন খুব স্বাভাবিক ভাবেই প্রভাস ও রানা দগ্গুবতি। অমরেন্দ্র বাহুবলী ও মহেন্দ্র বাহুবলী, এই দু’টি চরিত্রেই অভিনয় করেছেন প্রভাস। বাহুবলী টু-তে তাঁর এই অভিনয়ের জন্য প্রভাস পেয়েছেন ২৫ কোটি টাকা। অন্যদিকে রানা দগ্গুবতি পেয়েছেন ১৫ কোটি টাকা ভল্লাল দেব চরিত্রের জন্য।

ছবির দুই প্রধান চরিত্রের অভিনেত্রী, অনুষ্কা শেট্টি (দেবসেনা) ও তমন্না ভাটিয়া (অবন্তিকা), দু’জনেই পেয়েছেন ৫ কোটি টাকা। যদিও দ্বিতীয় ছবিতে অবন্তিকার অভিনয়ের অংশ নেই বললেই চলে। মাত্র ৫ মিনিট। তাও তাঁকে ওই পরিমাণ টাকাই দেওয়া হয়েছে।

বাকি দু’টি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র হল কাটাপ্পা ও শিবগামী। এই চরিত্রগুলির জন্য সত্য রাজ ও রম্য যথাক্রমে পেয়েছেন ২ কোটি টাকা ও ২.৫ কোটি টাকা।-এবেলা






মন্তব্য চালু নেই