মেইন ম্যেনু

বাড়িওয়ালার ছেলেকে পেটালেন ক্রিকেটার এনামুল!

বাড়ির গোডাউনে তালা মারার প্রতিবাদ করায় জাতীয় ক্রিকেটার এনামুল হক বিজয়ের ব্যাট ও ভাইয়ের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে গুরুতর আহত হয়েছে বাড়িওয়ালার ছেলে। আহত ওই ছেলের নাম মোতালেব হোসেন বাপ্পী (২৪)।

রোববার রাত ৯টার দিকে কুষ্টিয়া শহরের আড়ুয়াপাড়ার গৌরীশংকর আগরওয়ালা সড়কে হাজি আব্দুল হালিমের চারতলা বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। এ ব্যাপারে কুষ্টিয়া মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

আহত বাপ্পীর পিতা আব্দুল হালিম বলেন, ‘চার বছর ধরে আমার বাড়ির দ্বিতীয় তলায় ক্রিকেটার এনামুল হক বিজয়ের পিতা জামিল হোসেন পরিবার নিয়ে বসবাস করে আসছেন। বাড়ির নিচতলায় একটি গোডাউন রয়েছে। সেখানে আমার দোকানের চাল-ডালসহ কিছু মালামাল রাখা হয়। গতকাল সকালে আমার ছেলে বাপ্পী গোডাউন খুলতে গেলে দেখতে পায় আমাদের তালার পরিবর্তে অন্য তালা মারা রয়েছে। তখন এ বিষয়ে বিজয়ের পিতা জামিল হোসেনকে জিজ্ঞাসা করলে দুজনের মধ্যে কিছুটা বাগবিতণ্ডা হয়। জামিল হোসেন ঢাকায় অবস্থানরত এনামুল হক বিজয়কে জানায় যে, বাড়িওয়ালার ছেলে তাকে অপমান করেছে। গতকাল সন্ধ্যা ৭টার দিকে গাড়ি নিয়ে বিজয় ও তার তিন বন্ধু কুষ্টিয়ায় এসে তিনতলায় বাড়িওয়ালাকে ডাকেন। এ সময় বাপ্পীর মা রাবেয়া খাতুন ও পরিবারের লোকজন তাদের ভেতরে আসতে বলেন। বাপ্পী কোথায় আছে জানতে চেয়ে বিজয় দ্রুত সেখান থেকে নেমে শহরের বড়বাজারে বাড়িওয়ালার দোকান বিছমিল্লাহ ট্রেডার্সে যান। সেখান থেকে বাপ্পীকে রাত ৯টার দিকে বাড়ির কাছে নিয়ে আসেন। এরপর বাড়ির নিচতলায় গেটের ভেতরে নিয়ে ব্যাট দিয়ে পেটান। বিজয়ের ভাই সজীব ধারালো অস্ত্র দিয়ে বাপ্পীকে আঘাত করতে থাকে।’

তিনি বলেন, ‘বাড়ির লোকজনের চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলে বিজয় ও তার পিতা-মাতা সকলে সরে পড়েন। গুরুতর আহত অবস্থায় বাপ্পীকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।’

এ বিষয়ে ক্রিকেটার এনামুল হক বিজয়ের মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করে তাদের পাওয়া যায়নি।

কুষ্টিয়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বিপ্লব কুমার দেবনাথ জানান, দুই পক্ষ থেকেই অভিযোগ এসেছে। তদন্ত করে দেখে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।






মন্তব্য চালু নেই