মেইন ম্যেনু

‘বাড়িতে ঢোকা মাত্রই ওয়ার্ন আমাকে বিছানায় নিয়ে যেতে চায়!’

খেলোয়াড়ী জীবনে মাঠে যেমন তিনি ছিলেন ব্যাটসম্যানদের জন্য এক দু:স্বপ্নের নাম, তেমনি মাঠের বাইরেও নানা ঘটনায় তিনি আলোচিত ও সমালোচিত হয়েছেন। এখন খেলোয়াড়ী জীবন ছেড়ে দেয়ার পরও যেন বিতর্ক পিছু ছাড়ছে না শেন ওয়ার্নের।

এবার তাকে রীতিমত যৌনাসক্ত বলে মন্তব্য করলেন ২৪ বছর বয়সী মডেল সিমোন টুন। এমন খবর প্রকাশ করেছে ব্রিটিশ ট্যাবলয়েড ডেইলি সান। পত্রিকাটির কাছে সিমোন বলেছেন, ‘ওয়ার্নের কাছে আমি স্রেফ একজন যৌনসঙ্গী ছিলাম! আর সেটা আমার কাছে যথেষ্ট অপমানজনক ছিল।’

সিমোন জানিয়েছেন, একটি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে শেন ওয়ার্নের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। ওয়েবসাইটে ওয়ার্ন ‘ব্র্যাড ২৩’ ছদ্মনামে প্রোফাইল খুলেছিলেন। নিজের ছবিই অবশ্য ব্যবহার করেন ওয়ার্ন।

সিমোন বলেন, ‘এটা অবিশ্বাস্য ছিল! শেন ওয়ার্নের মত একজন মানুষ একটা ওয়েবসাইটে স্রেফ যৌনতা খুঁজতে আসবেন সেটা ভাবতে পারিনি।

আর এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে পরিচয়ের কিছুক্ষণের মধ্যেই সাবেক এই অস্ট্রেলিয়ান কিংবদন্তি লেগ স্পিনার সিমোনেকে তাঁর উত্তর লন্ডনের বাড়িতে আসতে বলেন। ওয়ার্নের বাড়িটি আবার লর্ডস ক্রিকেট গ্রাউন্ডের ঠিক পাশেই।

সিমোনে ওয়ার্নের বাড়িতে পৌঁছনোর পরেই বুঝতে পারেন যে, শেন ওয়ার্ন প্রচণ্ড মাত্রায় যৌনাসক্ত। এমনকি এর আগেও ওয়ার্ন সেই মডেলকে যৌনতায় ঠাসা মেসেজ পাঠান। ওর নামটা নকল ছিল – ব্র্র্যাড-২৩। এটাই খেলোয়াড়ী জীবনে ওর জার্সি নাম্বার ছিল। তবে, নিজের ছবিটা ব্যবহার করেছিল।’

সিমোন বলেন, ‘ও কোন ভাবেই আমার শরীর থেকে হাত সরাচ্ছিল না। আমি ওর বাড়িতে পা রাখা মাত্রই ও আমাকে ভুলিয়ে-ভালিয়ে বিছানায় নিয়ে যেতে চেষ্টা করে। আমি ১০ মিনিট ধরে চেষ্টা করে ব্যর্থ হই। ও আমার শরীরের জামা-কাপড় ‍খুলে ফেলে!’

৪৬ বছর বয়সী ওয়ার্ন প্রসঙ্গে সিমোন আরও বলেন, ‘আমার কখনও মনে হয়নি যে, ওর বয়স আমার দ্বিগুন। আমার বয়স্ক পুরুষ ভাল লাগে তবে সেটা কোন ভাবেই ৪৬ বছর বয়সী কেউ নয়। তবে, এক মুহূর্তের জন্যও ওয়ার্ন সেটা আমাকে বুঝতে দেয়নি।’

মজার ব্যাপার হল, শেন ওয়ার্নের সাবেক স্ত্রীর নামও সিমোন; সিমোন ক্যালাহান!






মন্তব্য চালু নেই