মেইন ম্যেনু

‘বায়োমেট্রিকে সিম নিবন্ধন নির্ধারিত সময়েই শেষ হবে’

বায়োমেট্টিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধনে বাধাদানকারীদের স্বার্থান্বেষী মহল উল্লেখ করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছেন ডাক তার ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম।

বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, `বায়োমেট্টিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধনে যারা বাধা দিচ্ছে তারা স্বার্থান্বেষী মহল। কেন তারা বিরোধিতা করছে তা খতিয়ে দেখা হবে এবং তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।`

তিনি বলেন, `বায়োমেট্টিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধন চলবে। কোনো বাধা আমাদের থামিয়ে রাখতে পারবে না। এপ্রিলে নির্ধারিত সময়েই সিম নিবন্ধন শেষ করবো। এই পদ্ধতির বিরুদ্ধে একটি শক্তিশালী চক্র প্রোপাগান্ডা চালাচ্ছে, যাতে এই কর্মসূচি ভেস্তে যায়।

এ পদ্ধতির বিরুদ্ধে আদালতের রুল প্রসঙ্গে তারানা হালিম বলেন, `এ নিয়ে কোনো সমস্যা হবে না। আদালতে রুলের জবাব দেবো। আইনিভাবে বিষয়টি মোকাবেলা করবো। দেশের স্বার্থে আমরা যে উদ্যোগ নিয়েছি তা বাস্তবায়ন হবে।’

বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে কোনো পর্যায়ে গ্রাহকের আঙ্গুলের ছাপ সংরক্ষণ করা হচ্ছে না বলেও দাবি করেন প্রতিমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘‍শুধু জাতীয় পরিচয়পত্রের (এনআইডি) সঙ্গে তথ্য যাচাই করা হচ্ছে। ফলে তৃতীয় পক্ষের কাছে আঙ্গুলের ছাপ যাওয়ার কোনো সুযোগ নেই।’

এর আগে সকালে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধন প্রসঙ্গে মোবাইল ফোন অপারেটর কোম্পানির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাদের (সিইও) সঙ্গে বৈঠক করেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম।

সিম ভেরিফিকেশনের জন্য বাংলালিংকের বায়োমেট্রিক ডিভাইস ব্যবহারে বাংলালিংকের সঙ্গে চুক্তি করেছে টেলিটক। প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিমের উপস্থিতিতে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন বাংলালিংকের এমডি ও সিইও এরিক অস্ এবং টেলিটকের পক্ষে এমডি গিয়াস উদ্দিন আহমেদ।






মন্তব্য চালু নেই