মেইন ম্যেনু

বিএনপির আন্দোলনকে দমানো যাবে না

চট্টগ্রাম নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহাদাত হোসেন বলেছেন, ‘বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফকরুল ইসলাম আলমগীর ও জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য বাবু গয়েশ্বর চন্দ্র রায়কে গ্রেপ্তার করে বিএনপির গণতান্ত্রিক আন্দোলনকে দমিয়ে রাখা যাবে না। দেশের মানুষের ভোটের অধিকার এবং দেশের হারানো গণতন্ত্র যতক্ষণ দেশে ফিরে আসবে না ততক্ষণ পর্যন্ত বিএনপি গণতান্ত্রিক আন্দোলন অব্যাহত রাখবে।’

বৃহস্পতিবার বিকেলে দলীয় কার্যালয় নাসিমন ভবনে ৭ নভেম্বর বিপ্লব ও সংহতি দিবস উপলক্ষে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির উদ্যোগে আয়োজিত এক প্রস্তুতি সভায় তিনি প্রধান বক্তার বক্তব্যে একথা বলেন।

ডা. শাহাদাত হোসেন আরো বলেন, ‘এই সরকারের হাতে কেউ নিরাপদ নয়। সরকার দেশের মানুষের জান মালের নিরাপত্তা দিতে সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ হয়েছে। দেশে আইনের শাসন বলতে কিছুই নেই, যার ফলে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে বার বার কারা বরণ করতে হয়। সরকার গণতান্ত্রিক আন্দোলনকে ভয় পায় বলেই বিরোধী নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার নির্যাতন চালাচ্ছে। অবিলম্বে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও বাবু গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের মুক্তি দিতে হবে।’

প্রধান অতিথির বক্তব্যে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি আলহাজ্ব সামশুল আলম বলেন, ‘দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। ব্যর্থ এই সরকারকে এই দেশের জনগণ আর চায় না। দলকে আরও সুসংগঠিত করতে সকল ভেদাভেদ ভুলে ঐক্যবদ্ধভাবে সকলকে এগিয়ে যেতে হবে। আগামী ৭নভেম্বরের কর্মসূচিতে ঐক্যবদ্ধভাবে দলীয় নেতাকর্মীদের প্রতি অংশগ্রহণ করার আহ্বান জানাচ্ছি।’

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি আলহাজ্ব আবু সুফিয়ানের সভাপতির বক্তব্যে বলেন, ‘আমরা স্বৈরাচার এরশাদ সরকারকে হটিয়ে এদেশে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করেছি। এই সরকার যত বড়ই স্বৈরাচার হোক না কেন, যেদিন দেশের জনগণ ক্ষেপে উঠবে, সেই দিন, পালার আর পদ খুঁজে পাবে না।’ বিএনপির নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধভাবে সকল কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করার জন্য আহ্বান জানান।

প্রস্তুতি সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি নেতা মুহাম্মদ মিয়া ভোলা, এম.এ. আজিজ, হারুন জামান, আর.ইউ চৌধুরী শাহীন, শফিকুর রহমান স্বপন, আনোয়ার হোসেন লিপু, ইয়াছিন চৌধুরী লিটন, জেলি চৌধুরী, জিএম আইয়ুব খান, সরফরাজ কাদের রাসেল, নবাব খান, মঞ্জুরুল আলম মঞ্জু, শাহেদ বক্স, সাবেক কাউন্সিলর হাজী তৈয়্যব, ছাবের আহমেদ, আকতার খান, মোঃ শাহেদ, কামরুল ইসলাম, গাজী মুহাম্মদ সিরাজ উল্লাহ, হানিফ সওদাগর, মীর কাউসার এলাহী, আলী আব্বাস, কাউন্সিলর জেসমিনা খানম, মহসীন আলী চৌধুরী, এস.এম. জি আকবর, হাজী মহিউদ্দিন, শাহ আলম, মোঃ সেলিম, এম.আই. চৌধুরী মামুন, তৌহিদুস সালাম নিশাদ, বখতেয়ার হোসেন, মসিউদ্দৌল্লাহ, বেলাল, আতাউল্লাহ বাবু, আকবর চৌধুরী, হামিদ হোসেন, ইদ্রিস আলম, নুর হোসেন, এ.কে.এম. পেয়ারু, মঞ্জুরুল আলম মঞ্জু, জাকির হোসেন, হাজী এমরান, খাইরুজ্জামান জুনু, মোঃ মুসা, হাফিজুল ইসলাম মিলন, মোঃ ইউসুফ, আব্দুল কাদের জসিম, জসিম উদ্দিন চৌধুরী, মোঃ মুসা, নুর হোসেন নুরু, মোহাম্মদ আলী সাকি প্রমুখ।

কর্মসূচি : শুক্রবার সকাল ১০ টায় ষোলশহর বিপ্লব উদ্যানে পুস্পস্তবক অর্পন, বিকেল ৩ টায় দলীয় কার্যালয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে।






মন্তব্য চালু নেই