মেইন ম্যেনু

‘মোসাদের সঙ্গে বৈঠক’

বিএনপির আসলাম চৌধুরী হঠাৎ উধাও

সরকার পতনের চক্রান্তের অংশ হিসেবে ইসরাইলের গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের এজেন্টের সঙ্গে বৈঠকের খবর প্রকাশ হওয়ার পর লাপাত্তা বিএনপির যুগ্মমহাসচিব আসলাম চৌধুরী। চট্টগ্রামের এই নেতার অবস্থান সম্পর্কে তার স্বজন ও রাজনৈতিক ভক্তরাও কোনও ধারণা দিতে পারছেন না। চট্টগ্রাম শহর ও সীতাকুণ্ডের বাড়িতেও তিনি নেই।

নগর গোয়েন্দা পুলিশের উপ কমিশনার দেবদাস ভট্টাচার্য বলেন, ‘মোসাদের সঙ্গে বৈঠকের খবর আসার পর থেকে বিএনপির এই নেতা নজরদারিতে আছেন। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞার পর তিনি গা ঢাকা দিয়েছেন। তবে তিনি দেশেই আছেন। মোসাদ কানেকশনের উপযুক্ত প্রমাণ পেলে যে কোনো মুহূর্তে গ্রেপ্তার হতে পারেন বিএনপির এই নেতা’।

সম্প্রতি ইসরাইলের সেন্টার ফর ইন্টারন্যাশনাল ডিপ্লোমেসি অ্যান্ড অ্যাডভোকেসির প্রধান মেন্দি এন সাফাদি ভারত সফর করেন। সেখানে বিভিন্ন পর্যায়ের ব্যক্তির সঙ্গে তার বৈঠক হয়েছে। বৈঠকে বাংলাদেশ স¤পর্কে নানা মন্তব্য করেন মেন্দি এন সাফাদি। এতে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব আসলাম চৌধুরীও উপস্থিত ছিলেন। বৈঠক শেষে গ্রুপ ছবি তোলেন সবাই। ওই ছবিতে আসলাম চৌধুরীও রয়েছেন।

গণমাধ্যমে এসব ছবি প্রকাশের পর গত ৭ মে তার দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা দেয় সরকার। এরপর দেশের প্রতিটি বিমানবন্দরে ও স্থলবন্দরগুলোয় সতর্কবার্তা পাঠিয়েছে গোয়েন্দা সংস্থা।

এই বৈঠকের ছবি ও এ নিয়ে বেশ কিছু প্রতিবেদন প্রকাশ হওয়ার পর বিএনপির পক্ষ থেকে বিষয়টি অস্বীকার করা হয়েছে। তবে দলটির সূত্র জানিয়েছে, বিষয়টিতে দলের শীর্ষ নেতৃত্ব যারপরনাই বিব্রত হয়েছেন। শনিবার বাংলাদেশে ফিলিস্তিনি চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্স ইউসুফ এস রামাদান এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, ইসরাইলি গোয়েন্দা সংস্থার এজেন্টের সঙ্গে আসলাম চৌধুরীর বৈঠকের বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করতে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর তার কাছে গিয়েছিলেন। মির্জা ফখরুল বলেছেন, বিএনপির সঙ্গে ইসরাইলের কোনও বৈঠক হয়নি।

ইউসুফ এস রামাদান বলেন, তিনি বিএনপিকে বলেছেন, এসব বিষয়ে তাদের আরও সতর্ক হওয়া উচিত। কারণ এ ধরনের ঘটনা তাদেও জন্য রাজনৈতিক আত্মহত্যা হতে পারে। রামাদান বলেন, ‘বাংলাদেশের কোনও রাজনৈতিক ব্যক্তি বা দল ইসরাইলের কোনও রাজনৈতিক ব্যক্তি, দল বা গোয়েন্দা সংস্থার সঙ্গে সম্পর্ক গড়লে তা হবে সেই ব্যক্তি বা দলের জন্য রাজনৈতিক আত্মহত্যা’।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ও সাবেক মন্ত্রী আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘ইসরাইলের গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদের সঙ্গে সরকার উৎখাতের ষড়যন্ত্র করলে তা প্রকাশ হওয়ার কথা নয়। এটি বানোয়াট তথ্য বলে আমাকে জানিয়েছে আসলাম চৌধুরী। বিএনপিকে ফাঁসানোর জন্য এ তথ্য ছড়ানো হচ্ছে’।






মন্তব্য চালু নেই