মেইন ম্যেনু

‘বিএনপি-জামায়াতের অপারেশন ক্লিনহার্ট বৈধ’

বিএনপি-জামায়াত সরকারের সময় ২০০২ সালের ১৬ অক্টোবর থেকে ২০০৩ সালের ৯ জানুয়ারি পর্যন্ত পরিচালিত ‘অপারেশন ক্লিন হার্ট’ নামে যৌথ বাহিনীর অভিযান দায়মুক্তির মাধ্যমে বৈধতা দেওয়া হয়েছে বলে সংসদকে জানিয়েছেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক।

দশম জাতীয় সংসদের ষষ্ঠ (বাজেট) অধিবেশনের প্রথম কার্যদিবসে সোমবার বিকেলে বেগম ফজিলাতুন নেসা বাপ্পির এক প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী এ কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘‘ওই অভিযানের সঙ্গে সম্পৃক্ত কোনো সদস্য বা ব্যক্তি বা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের মাধ্যমে পরিচালিত যৌথ অভিযানের যাবতীয় কার্যাদির জন্য তাদেরকে দায়মুক্ত করার লক্ষ্যে ‘যৌথ অভিযান দায়মুক্তি আইন-২০০৩’ প্রণয়ন করা হয়। যেহেতু জাতীয় সংসদ আইনটি প্রণয়ন করেছে সেহেতু এ দায়মুক্তি বৈধতা পেয়েছে।’’

ওই সদস্যের আরেক প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী বলেন, ‘আলোচিত, নৃশংস ও নারকীয় ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলাটি বর্তমানে বিচারের সাক্ষ্য গ্রহণ পর্যায়ে রয়েছে। ওই মামলায় মোট সাক্ষীর সংখ্যা ৪৯১ জন এবং আসামি সংখ্যা ৫২ জন। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা ও হত্যা মামলা দুটিতে এ পর্যন্ত ১৪৫ জন করে ২৯০ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়েছে। আরও ছয় সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য আদালতের নিকট সমন জারি করার প্রার্থনা জানানো হয়েছে। ৩৪৬ সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ বাকি রয়েছে। মামলা দুটি দ্রুত নিষ্পত্তির জন্য সপ্তাহে দুই থেকে তিনটি তারিখ পড়ছে।’






মন্তব্য চালু নেই