মেইন ম্যেনু

বিচারপতিসহ ৯ বিশিষ্ট ব্যক্তির ‘মৃত্যুদণ্ড’ ঘোষণা করে হুমকি

সর্বোচ্চ আদালতের বিচারপতি, আইনজীবী, শোলাকিয়ার খতিব, গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্রসহ দেশের ৯ জন বিশিষ্ট ব্যক্তিকে হত্যার হুমকি দিয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছে।

রোববার দুপুরে হুমকি দিয়ে এই চিঠি গণমাধ্যমে পাঠানো হয়।

চিঠিতে ৯ জনের নামের তালিকা দিয়ে উপরে লেখা হয়েছে, ‘তোমাদের মৃত্যুদণ্ডের রায় চূড়ান্ত, যে কোন সময় কার্যকর করা হইবে।’ প্রেরকের ঠিকানাবিহীন চিঠির ওপরে বাম পাশে লেখা আছে ‘নারায়ে তকবীর’ এবং ডান পাশে লেখা ‘আল্লাহু আকবর’।

এই হুমকির তালিকায় আছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের সাবেক চেয়ারম্যান বিচারপতি নিজামুল হক, ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ, অ্যাডভোকেট রানা দাসগুপ্ত, আজাদুর রহমান চন্দন, সাগর লোহানী, মিছবাহুর রহমান চৌধুরী, শোলাকিয়া ঈদগাহের খতিব ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ, গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান সরকার ও কামাল পাশা চৌধুরী।

শোলাকিয়া ঈদগাহের খতিব ফরীদ উদ্দীন মাসউদকে ‘ভুয়া মাওলানা’ বলে আখ্যায়িত করা হয়েছে এই চিঠিতে।

যুদ্ধাপরাধীদের বিচারিক প্রক্রিয়ায় অনড় অবস্থানে থাকায় একাধিকবার উড়ো চিঠি-ফোনে হত্যার হুমকি পেয়েছেন ব্যারিস্টার তুরিন আফরোজ।

তাই এইবারের হুমকি নিয়ে খানিকটা রসিকতা করেই চ্যানেল আই অনলাইনকে তুরিন বলেন,‘ চিঠিতে আমার মৃত্যুদণ্ড ঘোষণা করা হলেও দুঃখজনক ভাবে আইনজীবী নিয়োগ কিংবা আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ দেয়া হয়নি’।

তবে দায়িত্ব পালনে নিজের প্রত্যয় তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘শেষ বিচারের রায় তো দেবেন আল্লাহ। আমি তুরিন আফরোজ এসব ঠিকানাবিহীন চিঠির জন্য থেমে যাবো, এরকম যারা ভাবে তারা বোকার স্বর্গে বসবাস করছে।’

গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকার তাকে হুমকি দেয়ার প্রতিক্রিয়ায় বলেন,‘এসব হুমকিতো নতুন কিছু নয়। শুধু চিঠিতে নয় নানাভাবে হুমকি পেয়েছি, পাচ্ছি। আসলে এসব হুমকির মানে হচ্ছে ভীতি তৈরির চেষ্টা।

কিন্তু ত্রিশ লক্ষ শহীদের উত্তরসূরীরা হুমকি আসবে ধরে নিয়েই দায়িত্বপালন করছে, তারা হুমকিকে পরোয়া করে না। উল্টো এসব হুমকির মাধ্যমে প্রমাণিত হয় আমরা সঠিক কাজটি করছি। তাই দেশবাসীকে সঙ্গে নিয়ে এসব হুমকিই শুধু নয় যেকোনো পরিস্থিতিতে আমাদের সংগ্রাম চলবে।’

দেশব্যাপী যুদ্ধাপরাধীদের বিচার এবং তাদের সাম্প্রদায়িক রাজনীতির বিরুদ্ধে সোচ্চার বিশিষ্ট ব্যক্তিরা একাধিকবার নামে-বেনামে হুমকি পেয়ে আসছেন। এসব ব্যাপারে আইনগত পদক্ষেপও নেয়া হয়েছে।

নতুন করে ৯ বিশিষ্ট ব্যক্তিকে হত্যার হুমকি’র বিষয়টি ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) তদন্ত করে ব্যবস্থা নেবে বলে পুলিশ সদর দপ্তর থেকে জানানো হয়েছে।

ডিএমপি’র জনসংযোগ বিভাগ থেকে জানানো হয়, হুমকি দেয়া চিঠির বিষয়ে পুলিশ অবগত আছে। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।






মন্তব্য চালু নেই