মেইন ম্যেনু

বিচিত্র যৌনজীবনঃ ১৪ বছর বয়সে টানা ২২ ঘন্টা সেক্স

তখন তার বয়স ১৪। সেই সময়ের বাচ্চা মেয়েটি মায়ের হাত ধরে ঘুরতে গিয়েছিল গ্রিসে। ঘুরতে যাওয়ার প্রথম দিনটা তার কাছে চিরকালের স্মরণীয় হয়ে থাকবে। কারণ, গ্রিসে পৌঁছেই মিউজিয়াম থেকে শুরু করে সব জায়গায় ঘুরতে গিয়েছিল, ভালোমন্দ খাওয়া-দাওয়া থেকে শুরু করে কি ছিল না সেদিন।

কিন্তু এত আনন্দের মধ্যে যে তার জীবনে একটা গভীর অন্ধকার লুকিয়ে রয়েছে, তা বোধহয় তার জানা ছিল না।

সম্প্রতি এক টেলিভিশনে সাক্ষাৎকারে এই ব্রিটিশ মহিলা জানাচ্ছেন, প্রথমদিন সমস্ত জায়গা ঘুরতে ঘুরতে বেশ রাত হয়ে যায়। তাই পরের দিন আবার বেরনোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সেই মতো সকাল হতেই মায়ের হাত ধরে শহর দেখতে বের হয় সে। কিন্তু এক ভিড় জায়গায় মায়ের হাতছাড়া হয়ে যাওয়ার পর জীবনে নেমে আসা অন্ধকার।

ওই টেলিভশনে ওই মহিলা জানাচ্ছেন, কতগুলো লোক তাকে জোর করে তুলে নিয়ে যায়। এরপর তাকে বিক্রি করে দেওয়া হয় এক পতিতালয়ে। সেখানে এক বছর কাটানোর পর পতিতালয়ের মালিক তাকে বিক্রি করে দেয় অন্য এক জায়গায়। সেই জায়গাতে তার ওপর চলত অসম্ভব শারীরিক নির্যাতন। সেই মহিলা জানিয়েছেন, ২২ ঘণ্টার মধ্যে তাকে ১১০ জন পুরুষ ধর্ষণ করে। শেষ অবধি সে আত্মহত্যা করার সিদ্ধান্ত নেয়।

কিন্তু বরাত জোরে সে বেঁচে যায়। হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর সে নতুন জীবন পায়। তার জীবনে প্রেম আসে। বদলে যায় জীবন। এই বদলটা সবটাই ভালর জন্য। এখন সে সন্তানসম্ভবা।

টিভির সামনে নিজের জীবনের কথা বলতে গিয়ে কেঁদে ফেলেন এই মহিলা।






মন্তব্য চালু নেই