মেইন ম্যেনু

বিছানায় কেমন বোল্ট, জানালেন তরুণী!

সদ্য সমাপ্ত রিও অলিম্পিকে নিজেকে আবারও শ্রেষ্ঠ প্রমাণ করেছেন জ্যামাইকান কিংবদন্তি উসেইন বোল্ট। ট্রিপল ট্রিপল জিতিছেন তিনি।

কিন্তু এরপরই দেখা মেলে বোল্টের অন্য চেহারা। ব্রাজিলের ২০ বছর বয়সি তরুণী জেডি ডুয়ার্টের সঙ্গে রাত কাটানোর গোপন ছবি ফাঁস হয়ে যায়।

এরপরই বোল্টকে নিয়ে শুরু হয় বিতর্ক। জেডি নিজেই সেই ছবি তার বান্ধবীদের সঙ্গে শেয়ার করেন। পরে সেখান থেকে ভাইরাল হয়ে যায় রাত যাপনের ছবি।

এবার সেই রাতের অভিজ্ঞতা বর্ণনা করেছেন জেডি। তার মতে, বোল্ট ট্র্যাকে গতির সম্রাট হতে পারেন কিন্তু বিছানায় তিনি ম্যারাথন রানার।

ডুয়ার্টে বলছেন, বোল্ট যত দ্রুত সোনা জিততে পারে, তার থেকেও দ্রুতগতিতে মহিলাদের জিতে নেয়ার ক্ষমতা রাখে।

শনিবার রাতে বোল্টের সঙ্গে রিওর এক ক্লাবে দেখা হয়েছিল ডুয়ার্টের। তরুণীর খানিক আগেই দাঁড়িয়েছিলেন বোল্ট। ব্রাজিলীয় তরুণীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে যাচ্ছিলেন জ্যামাইকান কিংবদন্তি। হঠাৎই বোল্ট তার শরীর থেকে সরিয়ে ফেলেন জামা। তার বিখ্যাত সিক্স প্যাক তখন দৃশ্যমান। সেই সিক্স প্যাকের আবেদন অগ্রাহ্য করেন কীভাবে ডুয়ার্টে?

বোল্টের সুগঠিত শরীর দেখেই তার প্রেমে পড়ে যান ডুয়ার্টে। তার ভীষণ সুন্দর পেশিবহুল শরীরী সৌন্দর্য ডুয়ার্টেকে উন্মাদ করে দেয়।

পিছপা না-হয়ে ডুয়ার্টে সটান উঠে বসেন ট্যাক্সিতে।

বোল্ট ও ডুয়ার্টের ট্যাক্সি সোজা ঢুকে যায় অলিম্পিকের ভিলেজে। কেউ থামায়নি গাড়ি। কেউ জানতেও চাননি ডুয়ার্টের পরিচয়।

খুব অল্পই কথা হয়েছিল দু’ জনের মধ্যে। যেটুকু কথা হয়েছিল, তাতে ডুয়ার্টের রূপের তারিফ করেন বোল্ট। জ্যামাইকান কিংবদন্তির ভাবগতিক দেখে ডুয়ার্টের বুঝতে সমস্যা হয়নি, বোল্ট ‘শারীরিক সম্পর্ক’ করতে চাইছেন।

ঘরে ঢুকতেই শুরু হয়ে গেল বোল্ট ও ডুয়ার্টের গভীর ভালোবাসা।

সকালে ডুয়ার্টের হাতে ট্যাক্সির ভাড়াও দিয়ে দেন বোল্ট। প্যারাঅলিম্পিকের সময়ে আবারও তাদের দেখা হবে বলেও জানান বোল্ট।

ডুয়ার্টে বলেছেন, বোল্টকে দুরন্ত দেখতে। বিরাট বড় তারকা। সেই সঙ্গে বোল্ট নির্লজ্জও বটে। সেই রাতের অভিজ্ঞতা দারুণ।






মন্তব্য চালু নেই