মেইন ম্যেনু

বিদায় জানান উচ্চরক্তচাপ

আমাদের প্রতিদিনের খাবারে লবণ ব্যবহার হয়ে থাকে। সঙ্গে অস্বাস্থ্যকর চর্বি ও লুকানো চিনিও কম থাকে না।

যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, এটা মানুষের হৃদরোগের মাত্রা বাড়িয়ে দেয়, যার কারণে বেশিরভাগ মানুষের মৃত্যু হয়।

আমাদের দেশের অনেকে উচ্চরক্তচাপ রোগে ভুগছেন। ওই সব লোকদের জন্য উপদেশ হচ্ছে- কোলোস্টেরল ও উচ্চরক্তচাপ, শারীরিক সক্ষমতা, স্বাভাবিক ওজন বজায় রাখতে সিগারেট ও অ্যালকোহল এড়িয়ে চলুন।

তবে এটা সত্যি যে, এগুলো আপনার স্বাস্থ্যকে সুস্থ রাখার জন্য যথেষ্ট নয়। এজন্য স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা উচ্চরক্তচাপ ও শরীরকে সুস্থ রাখতে একটি পদ্ধতির কথা বলেছেন। বাড়িতে বসেই আপনি আপনার উচ্চরক্তচাপ সহজেই কমিয়ে আনতে পারবেন।

পদ্ধতির উপাদানসমূহ :

একটি রসুনের কিমা, সঙ্গে এক বা দুইটি লেবুর রস, কুঁচি কুঁচি করে কাটা দুই চামচ আদা ও এক চামচ আপেলের ভিনেগার ও এক চামচ মধু নিন।

এরপর এগুলো মৃসণ না হওয়া পর্যন্ত ব্ল্যান্ডারে (মেশানোর যন্ত্র) মিশিয়ে নিন। এগুলো একটি পাত্রে ঢালুন এবং ফ্রিজে স্টোর করে রাখুন।

সারাদিন বিশেষত খাবারের আগে অল্প করে এটা খান। এটা খাওয়ার সময় বিশ্রী স্বাদ লাগবে। এজন্য এর সঙ্গে খানিকটা পানি মিশিয়ে নিতে পারেন। এটা করলে তরল হবে, আর খাওয়ায় সুবিধা হবে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, কাঁচা রসুন রক্তে ট্রাইগ্লিসারাইড, কোলেস্টেরল ও রক্তে শর্করা কমায়। আদাতেও একই উপাদান রয়েছে যা আপনার রক্তে শর্করা, ট্রাইগ্লিসারাইড ও কোলেস্টেরল কমাতে সাহায্য করবে। আপেলের ভিনেগার রক্তে শর্করা ও ইনস্যুলিন স্বাভাবিক রাখতে সাহায্য করে। ট্রাইগ্লিসারাইড ও কোলেস্টেরল কমাতে দারুণ কাজে দেয়। মধু রক্তনালীতে কোলেস্টেরল জমা রাখতে বাধা দেয়। এই পদ্ধতি প্রয়োগ করুন, দেখবেন আপনার উচ্চরক্তচাপের মাত্রা কমে গেছে।

কেকে






মন্তব্য চালু নেই