মেইন ম্যেনু

বিদেশিদের আগমন ও অবস্থান মনিটরিং করবে সরকার

বিদেশি নাগরিক এবং দ্বৈত নাগরিকদের দ্বারা দেশে কিছু কিছু আইন-শৃঙ্খলা বিরোধী কর্মকাণ্ড হওয়ায় তাদের আগমন এবং অবস্থান মনিটরিং করবে সরকার। সোমবার জাতীয় সংসদ ভবনে বেসরকারি সদস্যদের বিল এবং বেসরকারি সদস্যদের সিদ্ধান্ত-প্রস্তাব সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির ৪র্থ বৈঠকে এ সুপারিশ করা হয়।

এ বিষয়ে পররাষ্ট্র এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মধ্যে সমন্বয় করে মনিটরিং ব্যবস্থা আরো জোরদার করার সুপারিশ করা হয়। একই সঙ্গে বিদেশি নাগরিকদের বাড়িভাড়া দেয়ার পূর্বে তাদের ভিসার মেয়াদ দেখে নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত বাড়িভাড়া দেয়ার সুপারিশ করা হয়।

কমিটির সভাপতি মো. জিল্লুল হাকিমের সভাপতিত্বে কমিটির সদস্য নূর-ই-আলম চৌধুরী, বি এ মোজাম্মেল হক, মোহাম্মদ আব্দুল মুনিম চৌধুরী এবং সানজিদা খানম উপস্থিত ছিলেন।

জানা যায়, ‘বিদেশি নিবন্ধন বিল- ২০১৫’ সম্পর্কে আলোচনা হয়। এসময় বিদেশিদের আগমন এবং অবস্থানের মনিটরিং ব্যবস্থার সুপারিশ করা হয়। বৈঠক শেষে কমিটির সভাপতি একথা বলেন।

বৈঠক সূত্র জানায়, প্রায় একমাস আগে গুলশানে জঙ্গি হামলার মাস্টারমাইন্ড নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক ও বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত হাসনাত করিম কানাডার নাগরিক। অন্যদিকে কানাডা প্রবাসী তাহমিদ হাসিব খানও এই ঘটনার মাস্টারমাইন্ড। এজন্য সংসদীয় কমিটি এ সুপারিশ করে।

জানা যায়, বৈঠকে সংসদ সদস্য মো. রুস্তম আলী ফরাজী আনীত বিধি ও প্রবিধান প্রণয়ন ক্ষমতা নিয়ন্ত্রণ বিল, ২০১৫, জেলা জজ আদালত মৌলিক অধিকার বলবৎকরণ (এখতিয়ার) বিল, ২০১৫, সংবিধান (সপ্তদশ সংশোধন) বিল, ২০১৪ এবং সংসদ সদস্য মো. ইসরাফিল আলম আনীত অসংগঠিত শ্রমিক কল্যাণ ও সামাজিক নিরাপত্তা (অপ্রাতিষ্ঠানিক খাত) বিল, ২০১৫, বিদেশি নিবন্ধন বিল, ২০১৫ সম্পর্কে আলোচনা করা হয়। পাঁচটি বিলের মধ্যে প্রথম তিনটি বিল সংসদে প্রেরণ না করার সুপারিশ করা হয়।

অসংগঠিত শ্রমিক কল্যাণ ও সামাজিক নিরাপত্তা (অপ্রাতিষ্ঠানিক খাত) বিল, ২০১৫ বিলটি অধিকতর আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটিতে প্রেরণের সুপারিশ করা হয়।






মন্তব্য চালু নেই