মেইন ম্যেনু

বিধবা মহিলাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ : অতঃপর

পাবনার বেড়ায় এক বিধবা মহিলাকে জোরপূর্বক ধর্ষন করেছে হামিদ নামের এক লম্পট। শুক্রবার রাতে তার ঘরে ঢুকে জোড়করে ধর্ষন করে সে। এলাকাবাসি লম্পট হামিদকে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করেছে।

এলাকাবাসি ও পুলিশ জানায়, বেড়া পৌর এলাকার সানিলা গ্রামের নিজাম সরকারের ছেলে আব্দুল হামিদ (৩৫) দীর্ঘদিন ধরে জগনাথপুর গ্রামের এক বিধবা নারীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে সম্পর্ক তৈরী করার চেষ্ঠা করে। সে বিভিন্ন সময় ওই বিধবাকে কুপ্রস্থাব দিয়ে উক্ত্যত্ত করতো।

তাতে গৃহবধু রাজী না হওয়ায় শুক্রবার রাতে আব্দুল হামিদ গৃহবধুর ঘরে ঢুকে অস্ত্রের মুখে ভয় দেখিয়ে জোর পূর্বক ধর্ষন করে। এ সময় বাড়ি ও আশপাশের লোকজন টের পেয়ে ঘরে শিকল আটকিয়ে লম্পট হামিদকে আটক করে। পরে বেড়া মডেল থানা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ ঘটনা স্থল থেকে ধর্ষক হামিদ ও গৃহবধুকে থানায় নিয়ে যায়। শনিবার হামিদকে পাবনা জেল হাজতে প্রেরন করা হয়। গৃহবধু অসুস্থ হয়ে পরলে তাকে বেড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে বিধবা ঐ মহিলার বড়বোন জানান, ছোট বোনের স্বামী মারা যাওয়ার পর থেকেই হামিদ তাকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে বিভিন্ন সময়ে উত্যক্ত করতো। এলাকাবাসি জানান, হামিদ এর আগেও এভাবে একাধিক নারী সাথে এরকম ঘটনা ঘটিয়েছে।

বেড়া মডেল থানার এস আই ফারুক হোসেন জানান, গৃহবধু অসুস্থ থাকায় থানায় মামলা হয়নি। তবে হামিদকে পাবনা জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে। এ ঘটনায় শনিবার (৭ মে) বেড়া মডেল থানায় একটি জিডি করা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই