মেইন ম্যেনু

বিনা পয়সায় অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত পড়াশোনা

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, ‘বাধ্যতামূলক অবৈতনিক শিক্ষা অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত করা হবে। সেই লক্ষ্যে গতকাল (বুধবার) প্রাথমিক শিক্ষার স্তর পঞ্চম শ্রেণি থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত উন্নীত করা হয়েছে। যা প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনে পরিচালিত হবে।’

বৃহস্পতিবার (১৯ মে) বিকেলে জাতীয় শিক্ষা ব্যবস্থাপনা একাডেমি (নায়েম) মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত তৃতীয় ইংলিশ ল্যাঙ্গুয়েজ টিচিং (ইএলটি) কোর্সের সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘এখন পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত বাধ্যতামূলক শিক্ষা। যার ব্যয় প্রত্যেক শিক্ষার্থীর জন্য সরকার বহন করে। যা অতীতে চতুর্থ শ্রেণি পর্যন্ত ছিল। অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত বাধ্যতামূলক শিক্ষা চালু করার লক্ষ্যে প্রাথমিক শিক্ষাকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত উন্নীত করা হয়েছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘এর ফলে অষ্টম শ্রেণির নিচে পড়াশোনা করা কোনো নাগরিক থাকবে না। উন্নয়ন, ডিজিটাল বাংলাদেশ নির্মাণের পূর্বশত আধুনিক জ্ঞান ও উন্নত প্রযুক্তিতে দক্ষ জনশক্তি। আমাদের শিক্ষার্থীদের সর্বাধুনিক জ্ঞান, বিজ্ঞানে শিক্ষিত, দক্ষ করতে শিক্ষার গুণগত দিক থেকে আমূল পরিবর্তন করতে চাই। যাতে আধুনিক, উন্নত বাংলাদেশের নির্মাতারা বিশ্ব নাগরিক হতে পারে।’

শিক্ষকদের আধুনিক বাংলাদেশের নির্মাতা তৈরি করতে নিবেদিত প্রাণ হওয়ার আহ্বান জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘শিক্ষা শুধু পেশা না। এটা পেশার চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। শিক্ষকদের সে গুরুত্ব উপলদ্ধি করতে হবে। শিক্ষকরা সবচেয়ে বেশি সম্মানিত। সম্মান পাওয়ার জায়গাটা শিক্ষকদেরই তৈরি করতে হবে।’

নায়েমের মহাপরিচালক প্রফেসর হামিদুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের শুরুতে সারা দেশের ৫টি টিচার্স ট্রেনিং কলেজে (কুমিল্লা, সিলেট, ফরিদপুর, চট্টগ্রাম এবং পাবনা) অনুষ্ঠিত কোর্সের কো-অর্ডিনেটররা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে স্ব স্ব কেন্দ্র থেকে নিজেদের অনুভূতি ব্যক্ত করেন।

এবার ৫টি অঞ্চলের ৫টি কলেজ থেকে ৪০ জন করে মোট ২০০ জন শিক্ষক ইংরেজি ভাষা শিক্ষা প্রদান কোর্সে অংশগ্রহণ করেন।






মন্তব্য চালু নেই