মেইন ম্যেনু

বিপিএলে অনুমতি পাচ্ছে না ১৬ লঙ্কান

বিপিএলে খেলতে শ্রীলঙ্কার ১৬ ক্রিকেটারকে ছাড়পত্র দিচ্ছে না দেশটির ক্রিকেট বোর্ড।

২২ নভেম্বর শুরু হওয়ার কথা বিপিএলের তৃতীয় আসর। ইতিমধ্যে শ্রীলঙ্কার ১৬ ক্রিকেটারকে বিভিন্ন দল কিনে নিয়েছে। কেউ পারিশ্রমিকের টাকাও নিয়ে নিয়েছেন।

ক্রিকেট শ্রীলঙ্কার অপারেশন ম্যানেজার কার্লটন বের্নান্ডাস জানিয়েছেন, শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের সঙ্গে কেন্দ্রীয় চুক্তির আওতায় যেসব খেলোয়াড় রয়েছেন তারা দেশের ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে খেলতে চুক্তিবদ্ধ। ২৭ নভেম্বর থেকে শুরু হবে শ্রীলঙ্কার নিউজিল্যান্ড সফর। আর ২০ নভেম্বর থেকে ঘরোয়া ক্রিকেটে শীর্ষ একদিনের টুর্নামেন্টটি শুরু হচ্ছে। চুক্তি অনুসারে খেলোয়াড়রা শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটকে সেরা সেবা দিতে বাধ্য। তাই কেন্দ্রীয় চুক্তির আওতায় যেসব খেলোয়াড়রা রয়েছেন তাদের বিপিএলে খেলার ছাড়পত্র দেবে না ক্রিকেট শ্রীলঙ্কা।
সূত্রমতে, অন্তত ১৬ জন কেন্দ্রীয় চুক্তির খেলোয়াড়কে অনাপত্তিপত্র দেওয়া হবে না।

তবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সিইও নিজামউদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘যাই হোক, আমরা আত্মবিশ্বাসী যে, এসএলসি তাদের চুক্তিবদ্ধ খেলোয়াড়দের এনওসি দেবে। আশা করছি, তা কয়েকদিনের মধ্যেই সম্পন্ন হবে।’

অনুমতি পাচ্ছে না: শিহান জয়সুরিয়া, ইসুরা উদানা, দিলরুয়ান পেরেরা, ধাম্মিকা প্রসাদ, মিলিন্ডা সিরিবর্ধনে, বিনুরা ফার্নান্দো, অজন্তা মেন্ডিস, লাহিরু থিরিমান্নে, কিথুরুয়ান ভিতানাগে, নিরোসান ডিকওয়েলা, প্রসন্ন জয়বর্ধনে, আসান প্রিয়াঞ্জন, সাচিত পাতিরানা, সাচিত্রা সেনানায়েকে, সিকুজি প্রসন্ন, উপুল থারাঙ্গা ও জীবন মেন্ডিস। উল্লেখ্য, এর মধ্যে জীবন মেন্ডিস ক্লাব থেকে অনুমতি পেলেও কেন্দ্রীয় চুক্তির খেলোয়াড় হওয়ায় এনওসি বাধায় পড়েছেন।






মন্তব্য চালু নেই