মেইন ম্যেনু

বিমানবন্দর থেকেই ফিরে গেলেন পাকিস্তানি ব্যাংক কর্মকর্তা

ভিসা জটিলতার কারণে স্টেট ব্যাংক অব পাকিস্তানের সিনিয়র জয়েন্ট ডিরেক্টর আসমা খালিদকে বাংলাদেশে প্রবেশের অনুমতি দেয়া হয়নি।

তিনি বাংলাদেশ ব্যাংক ও ইউএন-ডিইএসএ এর যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত একটি আন্তর্জাতিক কর্মশালায় যোগ দিতে গতকাল রোববার সন্ধ্যায় কাতার এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে ঢাকায় আসেন। কিন্তু বাংলাদেশের ভিসা না থাকায় শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষ তাকে বিমানবন্দরেই আটকে দেয়। প্রায় ২৫ ঘণ্টা বিমানবন্দরে অবস্থান করে ভিসার চেষ্টা করেও না পেয়ে আসমা খালেদ সোমবার দুপুরে ঢাকা ছেড়ে যান।

বাংলাদেশ ব্যাংক ও ইউএন-ডিইএসএ এর যৌথ আয়োজনে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে সোমবার থেকে দুই দিনের একটি আন্তর্জাতিক কর্মশালা শুরু হয়েছে। পাকিস্তান কেন্দ্রীয় ব্যাংকের এই উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা আসমা খালিদ ওই কর্মশালায় যোগ দিতেই ঢাকায় এসেছিলেন।

এ বিষয়ে ইমিগ্রেশন পুলিশের বিশেষ সুপার মাহবুবুর রহমান জানান, আসমা খালিদ বোববার সন্ধ্যায় ঢাকায় আসেন। কিন্তু তার বাংলাদেশে আসার ভিসা ছিল না। আর পাকিস্তানি নাগরিকদের অন অ্যারাইভাল ভিসা (বিমানবন্দর থেকে দেয়া ভিসা) দেয়ার নিয়ম নেই। তাই তাকে বাংলাদেশে প্রবেশের অনুমতি দেয়া হয়নি। নিয়ম অনুযায়ী তিনি যে বিমানে এসেছেন (কাতার এয়ারলাইন্স) সেই বিমান কর্তৃপক্ষের কাছেই তাকে হস্তান্তর করা হয়েছে। সোমবার দুপুর দেড়টার সময় তিনি কাতার এয়ারলাইন্সের একটি বিমানে ঢাকা ত্যাগ করেন।

প্রসঙ্গত, এমন এক সময় এ ঘটনা হলো, যখন একাত্তরের মানবতা বিরোধীদের বিচার নিয়ে পাকিস্তানের বক্তৃতা-বিবৃতিকে কেন্দ্র করে দুই দেশের সম্পর্কের টানাপোড়ন চলছে।






মন্তব্য চালু নেই