মেইন ম্যেনু

বিমানে ইলেকট্রনিক ডিভাইস ব্যবহারে দুর্ঘটনা এড়াতে করবেন এই ৪ টি কাজ

এক তরুণী বিমানে করে মেলবোর্ন যাচ্ছিলেন। বিমানে সফরের সময় ব্যাটারিচালিত হেডফোন কানে গুঁজে গান শুনছিলেন। হঠাৎ সেটা বিস্ফোরণ হয়। তরুণীর মুখ ও হাত পুড়ে যায়। মাস খানেক আগের ঘটনা। হেডফোন বিস্ফোরণের কারণ অবশ্য জানা যায়নি। তবে এ ধরণের ঘটনা যে কারও সঙ্গে ঘটতে পারে।

বিমানে উঠে অনেকেই হেডফোনে গান শোনেন, ট্যাবে গেম খেলেন, ভিডিও দেখেন। ফলে ওই তরুণীর মতো দুর্ঘটনার একটা প্রবল সম্ভাবনা থেকে যায় বলাইবাহুল্য। তবে এ ধরনের ঘটনার শিকার যাতে না হতে হয়, তার জন্য কয়েকটি বিষয়ে আগাম সতর্ক থাকলেই হবে।

সেগুলো কী একটু জেনে নেওয়া যাক:

১: ডিভাইস ছাড়া যে অতিরিক্ত ব্যাটারি সঙ্গে রাখছেন, সেগুলো ব্যাগের ভিতর খোলা অবস্থায় না রেখে কোনও ভাল ভাবে কোনও বাক্সে প্যাকিং করে সেটাকে টেপ দিয়ে এমন ভাবে সিল করে দিন যাতে অন্য বস্তুর সংস্পর্শে না আসে।

২: অতিরিক্ত ব্যাটারি, পাওয়ার ব্যাঙ্ক সঙ্গে থাকলে সেগুলোও কেবিন ব্যাগেজে রাখুন।

৩: ব্যাটারিচালিত ডিভাইস আপনার কেবিন ব্যাগেজের সঙ্গে রাখাটাই ভাল। যদি কোনও ভাবে বিস্ফোরণ হয় বা ডিভাইসে আগুন ধরে যায়, তা হলে সে দিকটা কেবিন ক্রু-রা ভাল ভাবে নজর রাখতে পারবেন এবং সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থাও নিতে পারবেন তাঁরা।

৪: সাধারণত বেশির ভাগ হেডফোন ব্যাটারিচালিত হয় না। তবে এখন বেশ কিছু সংস্থা এই ধরনের হেডফোন বাজারে এনেছে। যদি এই ধরনের হেডফোন ব্যবহার করেন, তা হলে সেই একই ভাবে ব্যাটারি ও চার্জারের দিকটাও খেয়াল রাখতে হবে।-আনন্দ বাজার






মন্তব্য চালু নেই