মেইন ম্যেনু

বিল গেটস : ‘সন্ত্রাসীদের তথ্য’ নিয়ে বিতর্ক উচিৎ

গুরুত্বপূর্ণ তথ্যের প্রয়োজনে প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোর কি সরকারের অনুরোধ রক্ষা করা উচিৎ কিনা, সেটা নিয়ে বড় বিতর্ক হওয়া উচিৎ বলে জানিয়েছেন মাইক্রোসফটের কর্ণধার বিল গেটস। সান বার্নারডিনো হামলার আসামির তালা দেয়া আইফোনের তথ্য নিয়ে অ্যাপল এবং এফবিআইয়ের যে দ্বন্দ্ব চলছে, সেটা থেকেই এই বিতর্ক সুত্রপাত।

এফবিআই মৃত সন্ত্রাসী রেজয়ান ফারুকের ফোন আনলক করার কথা বললে অ্যাপল গ্রাহকদের নিরাপত্তার কথা বলে সেটা প্রত্যাখ্যান করে। কিন্তু সন্ত্রাসী রেজয়ান ফারুকের হামলায় গত ডিসেম্বরে সান বার্নারডিনোতে ১৪ জন মানুষ নিহত হন।

যুক্তরাজ্যের অর্থনীতি বিষয়ক সংবাদপত্র ফিনান্সিয়াল টাইমসকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে গেটস বলেন, এফবিআইয়ের সাথে এটা নিয়ে অ্যাপলের সহযোগিতা করা মানেই এই নয় যে, সব আইফোনের নিরাপত্তা ফাঁস হয়ে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, ‘এটা একটি বিশেষ মামলা। যেখানে সরকার নির্দিষ্ট একজন সন্ত্রাসীর তথ্য জানতে চাচ্ছে। সরকার বলছে না যে, এটা সবার ক্ষেত্রেই করতে হবে।’

বিল গেটস বলেন, একই ধরনের ঘটনা কিন্তু ব্যাংক এবং ফোন কোম্পানিগুলোতে প্রায়ই ঘটে। সরকার সাধারণভাবেই এই তথ্যগুলো জানতে চায় এদের কাছে।

সংবাদ মাধ্যম বিবিসিকে দেয়া আরেকটি সাক্ষাৎকারে গেটসকে জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল, সরকারের কি এই তথ্যগুলো পাওয়া উচিৎ কিনা? সেখানেও তিনি একই কথা বলেছেন। সরকার যদি জনগণের নিরাপত্তার স্বার্থে কোনো তথ্য চায় তাহলে সেটা পাওয়া উচিৎ।

এফবিআই এবং অ্যাপলের এই দ্বন্দ্ব নিয়ে মাইক্রোসফট এখনো পর্যন্ত কোনো মন্তব্য করেননি। তবে বিল গেটস মনে করেন, নিরাপত্তার প্রশ্নটি এখানে গুরুত্বপূর্ণ। সমস্যা সমাধানে এই বিষয়ে একটি বড় বিতর্ক হওয়া উচিৎ।

উল্লেখ্য, অ্যাপলের প্রধান কার্যনির্বাহী টিম কুকের এই সিদ্ধান্তের পর তার সাথে একাত্মতা জানিয়েছিল ফেসবুকের প্রধান মার্ক জুকারবার্গসহ বিশ্বের বড় বড় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম।



« (পূর্বের সংবাদ)
(পরের সংবাদ) »



মন্তব্য চালু নেই