মেইন ম্যেনু

বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্দেশ্য হওয়া উচিৎ জ্ঞান সৃষ্টি, জ্ঞানের ধারণ ও বিতরণ

এইচ.এম নুর আলম, বেরোবি প্রতিনিধি: বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান বলেছেন ‘দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মূল উদ্দেশ্য হওয়া উচিৎ জ্ঞান সৃষ্টি, জ্ঞানের ধারণ ও জ্ঞান বিতরণ। বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে শিক্ষার মান আরো বৃদ্ধি করতে হবে। গবেষণা বাড়াতে হবে। আজ রবিবার বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক ১ম বর্ষে ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের নবীনবরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন ইউজিসি চেয়ারম্যান।

তিনি আরো বলেন দেশে উচ্চ শিক্ষার বিস্তার ঘটাতে সরকার নতুন নতুন বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করেছে। এসব নতুন বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে পূরনো বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মতো সুবিধা এখনো নিশ্চিত করা সম্ভব হয়নি। আর নতুন বিশ্ববিদ্যালয়ে কিছু সমস্যা থাকবেই। তবে পর্যায়ক্রমে এসব সমস্যা সমাধানে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন কাজ করে যাচ্ছে।

অনুষ্ঠানে দেশবরেণ্য ব্যক্তিত্ব জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মিজানুর রহমান নবীন শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন ‘স্বাধীন চেতনা নিয়ে জীবন গড়তে হবে। অন্যের অধিকারকে রক্ষা করতে হবে। তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের শিক্ষা সহায়ক সকল সুবিধা নিশ্চিত করতে কর্তৃপক্ষের প্রতি আহবান জানান।

বেগম রোকেয়ার বিভিন্ন কর্মকান্ড ও প্রকাশনার কথা উল্লেখ করে জাহাঙ্গীর নগব বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলাম শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, তোমাদেরকে বেগম রোকেয়ার চেতনা লালন করতে হবে। তাঁর সম্পর্কে গবেষণা করতে হবে। নিজেকে সমাজের যোগ্য হিসেবে গড়ে তুলতে হবে।

সকাল সাড়ে ১০টায় স্বাধীনতা স্মারক প্রাঙ্গণে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও পরে পায়রা উড়িয়ে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান। এছাড়া ফুল ছিটিয়ে নবীন ছাত্রছাত্রীদের বরণ করে নেওয়া হয়। এসময় বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ কে এম নূর-উন-নবীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত নবীনবরণ অনুষ্ঠানে অন্যানের মধ্যে বক্তব্য পেশ করেন বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মতিউর রহমান, প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. তাজুল ইসলাম, কলা অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. সাইদুল হক, উপাচার্যের সহধর্মিনী মিসেস গুল নাহার নবী, শিক্ষার্থীদের পক্ষে বাংলা বিভাগের শিক্ষার্থী স্মৃতিরানী সরকার ও নবীন ছাত্রী ফারজানা ইয়াসমিন। অনুষ্ঠানে সঞ্চালক ছিলেন শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলের প্রভোস্ট ড. আবু ছালেহ মোহাম্মদ ওয়াদুদুর রহমান।

অন্যদিকে আজ সকাল ১১ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদ চালুর দাবিতে মানববন্ধন করেন শিক্ষার্থীরা। পরে উপাচার্য মার্চ মাসের ৩১ তারিখের মধ্যে মসজিদ চালু করা হবে বলে প্রতিশ্রুতি দেন।
বিকেলে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।






মন্তব্য চালু নেই