মেইন ম্যেনু

বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীকে ‘পতিতা’ বানিয়ে হয়রানি, ফেঁসে গেলেন এসআই রতন

রাজধানীর আদাবর থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) রতনের বিরুদ্ধে বিচারবিভাগীয় তদন্তে আশা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীকে হয়রানির অভিযোগের প্রমাণ মিলেছে।

মঙ্গলবার আদালত এ সংক্রান্ত তথ্য প্রকাশ করেছেন।

গত ১ ফেব্রুয়ারি এ ঘটনায় করা মামলার বিচারবিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছিলেন ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৪ এর বিচারক সালেহ উদ্দিন আহমেদ।

এর আগে সোমবার তেজগাঁও বিভাগের পুলিশের পক্ষ থেকে দুই সদস্যবিশিষ্ট গঠিত তদন্ত কমিটি তাদের প্রতিবেদন ডিসি বিপ্লব কুমার সরকারের কাছে জমা দেয়। তাতে এসআই রতনের বিরুদ্ধে অভিযোগের সতত্য না পাওয়ার বিষয় জানানো হয়।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের ৩১ জানুয়ারি আশা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রীকে হয়রানির অভিযোগ ওঠে আদাবর থানার এসআই রতন কুমারের বিরুদ্ধে। এর পরপরই রতনকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়। ওই ছাত্রীকে ‘পতিতা’ বানিয়ে তার কাছে ইয়াবা রয়েছে দাবি করে দেহ তল্লাশি করে রতন। নির্জন একটি স্থানে নিয়ে তার জ্যাকেট খুলতে বাধ্য করা হয়। পরে ওই ছাত্রীর স্বামী থানায় অভিযোগ করেন।






মন্তব্য চালু নেই