মেইন ম্যেনু

বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পদত্যাগ করলেন পর্নস্টার অধ্যাপক

কয়েক ডজন পর্নো ছবিতে অভিনয় করেছেন ম্যানচেষ্টার বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়নের অধ্যাপক নিকোলাস গোডার্ড, এমন খবর প্রকাশিত হওয়ার পর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পদত্যাগ করেছেন তিনি।

ম্যানচেষ্টার বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ‍মুখপাত্রের বরাতে এ সংবাদ জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম মেট্রো। তিনি জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের দায়িত্ব থেকে পদত্যাগ করেছেন অধ্যাপক গোডার্ড। তার এ পদত্যাগ আগামী মাসের এক তারিখ থেকে কার্যকর হবে।

আগামী এক তারিখ পর্যন্ত তার দায়িত্বে থাকা ক্লাস এবং তত্বাবধান তার সহকর্মীদের দায়িত্বে থাকবে।
একটি পর্নো ছবিতে তাকে অভিনয় করতে দেখেন এক শিক্ষার্থী। এরপর বিষয়টি নিয়ে বিস্তর তদন্ত করা হয়।
‘ব্লন্ডি টিন লেক্সি গেট ফাকড বাই ওল্ড নিক’ নামক এক পর্নো ছবিতে ৪০ বছরের ছোট এক মেয়ের সাথে যৌন মিলন করতে দেখা গেছে নিককে।

তার করা ছবিগুলো ‘বিউটি এন্ড সিনিয়র’ নামে পরিচিত এবং এগুলো পর্নোহাবে এতোটাই পরিচিত যে তা এক মিলিয়নেরও বেশিবার হিট হয়েছে।

অধ্যাপক গোডার্ড দ্য সানকে বলেছেন, পর্নো দেখার পরে সেখানকার অভিনেতাদের নিয়ে অভিযোগ করা লোকজনের এক ধরণের ভণ্ডামী। শিক্ষার্থী এবং কর্মকর্তারা কেন পর্নো দেখে খুশি হন আবার যখন সেখানকার অভিনেতাকে চিনে ফেলেন তখন কেন অখুশি হন?

তিনি আরও বলেন, প্রতিদিন বিকেলে এবং সাপ্তাহিক বন্ধের দিন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তিন ভাগের দুই ভাগ সময়েই ইন্টারনেট ব্যবহৃত হয় পর্নো ছবি দেখতে।






মন্তব্য চালু নেই