মেইন ম্যেনু

বিশ্বব্যাংকের সঙ্গে ২৪০০ কোটি টাকার ঋণ চুক্তি

দেশের আর্থিক খাত উন্নয়নে প্রায় ২ হাজার ৪০০ কোটি টাকা ঋণ দিচ্ছে বিশ্বব্যাংক। এ লক্ষ্যে মঙ্গলবার একটি ঋণ চুক্তি সই হয়েছে।

রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে চুক্তিতে সই করেন অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ মেজবাহ উদ্দিন, বিশ্বব্যাংকের ভারপ্রাপ্ত কান্ট্রি ডিরেক্টর ক্রিস্টিন ই কাইমস এবং বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক আহসান উল্লাহ।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, প্রস্তাবিত প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে দেশের রফতানি ও ম্যানুফ্যাকচারিং খাতে দীর্ঘমেয়াদি ঋণের সুবিধা সম্প্রসারণ, আর্থিক খাতের সুপারভিশন ও রেগুলেশন ক্ষমতা আরও শক্তিশালীকরণ, আর্থিক মধ্যস্থতা কার্যক্রমের পদ্ধতিগত মানোন্নয়ন এবং মূলধন সঞ্চয়ন বৃদ্ধি করা সম্ভব হবে, যা আর্থিক খাত শক্তিশালী করার মাধ্যমে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি ত্বরান্বিত করবে। ভবিষ্যৎ প্রবৃদ্ধি ও কর্মসংস্থানের চালিকাশক্তি হিসেবে বিবেচিত উৎপাদনশীল ফার্ম বিশেষ করে মাজারি আকারের রফতানিমুখী ফার্মসমূহ ঋণ প্রবাহ বৃদ্ধির মাধ্যমে প্রকল্পটির রফতানি প্রবৃদ্ধি, কর্মসংস্থান সৃষ্টি এবং ম্যানুফ্যাকচারিং খাতে উচ্চ প্রবৃদ্ধি অর্জনসহ নিম্ন বিনিয়োগজনিত ক্ষতি হ্রাস করবে। প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে সার্বিকভাবে আর্থিক খাত আরও শক্তিশালী হবে, যা আর্থিক খাতের স্থিতিশীলতা নিশ্চিত করাসহ আর্থিক মধ্যস্থতা কার্যক্রমের উন্নযনের মাধ্যমে অন্তর্ভুক্তিমূলক অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি অর্জনে সহায়তা করবে।

উপযুক্ত ঋণের ডিজবাজড এ্যামাউন্টের ওপর বিশ্বব্যাংকের বার্ষিক শূন্য দশমিক ৭৫ শতাংশ হারে সার্ভিস চার্জ প্রদান করতে হবে। এ ঋণের অর্থ ৬ বছরের গ্রেস পিরিয়ডসহ ৩৮ বছরে পরিশোধ করতে হবে। বর্তমানে বিশ্বব্যাংকের ঋণের ওপর কোনো কমিটমেন্ট চার্জ নেই।






মন্তব্য চালু নেই