মেইন ম্যেনু

বিশ্বের প্রথম দেশ, যেখানে চাকরিজীবী আর বেকারের বেতন সমান!

আপনি কাজ করেন আর নাই করেন, বেতন পাবেন সমান। যদি এমন হয়, কেমন হতো? এত ভাবতে হবে কেন? হয়েছেতো এমনটা! বিশ্বের প্রথম এবং একমাত্র দেশ হিসেবে সুই‌জারল্যান্ড প্রত্যেক বাসিন্দাদের একই পরিমাণ অর্থ উপার্জনের ব্যবস্থা করতে যাচ্ছে। অর্থাৎ‌, যিনি চাকরি করছেন, তিনিও যা বেতন পাবেন, বেকার ভাতা বাবদ সরকারও সেই একই পরিমাণ অর্থ বেকারদের দেবে।

আর এর মাধ্যমে বেকার জীবন মানেই পরের ভরসায় দিন গুজরানোর ইতি হতে চলেছে সুইজারল্যান্ডের যুব সমাজের। সে দেশের বুদ্ধিজীবী মহলের একাংশ সরকারকে প্রস্তাব দিয়েছে, প্রত্যেক নাগরিকের আয় সুনিশ্চিত করা হোক এবং একই আয় করে দেয়া হোক।

প্রস্তাবে বলা হয়েছে, প্রত্যেক বাসিন্দার আয় ১ হাজার ৭০০ ইউরো করে দেয়া হবে (বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ১ লাখ ৪৫ হাজার ৪৯৪ টাকা)। যে ব্যক্তি চাকরি করবেন, তিনিও এই টাকাই বেতন পাবেন। যিনি বেকার, তিনিও ওই একই অর্থ পাবেন সরকারের কাছ থেকে ভাতা বাবদ। এখানেই শেষ নয়। বাচ্চাদের জন্যও ৪৩০ ইউরো করে ভাতার চালু করার প্রস্তাব বিবেচনা করছে সুইস সরকার।

সম্প্রতি সুই‌জারল্যান্ডের বুদ্ধিজীবী মহল একটি সমীক্ষা চালিয়ে দেখেন, দেশের একটা বড় অংশের মানুষের পর্যাপ্ত রোজগারের উপায় থাকলেও, তারা কাজ করতে চাইছেন। মাত্র ১ তৃতীয়াংশ মানুষ বাড়িতে বসে থাকার পক্ষপাতি। তাই সরকার যদি ভাতা সুনিশ্চিতও করে দেয়, তাহলেও কেউ বাড়িতে বসে থাকতে চাইবে না, কাজ করবেন।

প্রস্তাবটি যদি গৃহীত হয়, তাহলে সুইস সরকারের কোষাগার থেকে বছরে ১৪৩ বিলিয়ন ইউরো খরচ হবে।






মন্তব্য চালু নেই