মেইন ম্যেনু

বিশ্বের সবচেয়ে বেশি বয়সের যমজ ভাইয়ের পরামর্শ!

বিশ্বের সবচেয়ে বেশি বয়সের যমজ ভাইয়ের রেকর্ড যখন নাকের ডগায় তখন একবার নিজেদের মধ্যে পরামর্শ করে নিলেন পিটার ও পলাস ল্যাঙ্গারক। বর্তমানে তারাই বিশ্বের সবচেয়ে বেশি বয়সের যমজ ভাই। ১০২ বছর বয়সী এই সহোদর থাকেন বেলজিয়ামের ঘেন্ট শহরে।

এখন পর্যন্ত বিশ্বে সবচেয়ে বেশি বয়সের যমজ ভাইয়ের স্বীকৃতি আমেরিকার গ্লেন ও ডেল মোয়ের দখলে রয়েছে। তারা ১০৫ বছর বেঁচেছিলেন। সে হিসেবে পিটার ও পলাস ল্যাঙ্গারক আর মাত্র তিন বছর বাঁচলে সবচেয়ে বেশি বয়সের যমজ ভাইয়ের রেকর্ড ভঙ্গ করবেন।

১৯১৩ সালের ৮ জুলাই জন্ম নেওয়া এ যমজ বিয়ে করেননি। ২০ শতকের মাঝামাঝি সময়ে ম্যাজিস্ট্রেট ছিলেন দু’জনই। তারা জানান, দীর্ঘ এই জীবনের রহস্য হলো- পরিমিত খাবার, প্রতিদিন উন্নতমানের এক গ্লাস মদপান এবং নারীর পেছনে না ছোটা।

প্রায় পুরো জীবন ঘেন্ট শহরের একটি বাড়িতে একত্রে কাটিয়েছেন। এখন পর্যন্ত সাধারণত কেউ কাউকে ছেড়ে থাকেন না। একটি রুমে দু’ইজন শেয়ার করে থাকেন।

পলাস বলেন, ‘আমি বেশি কিছু পরামর্শ দিতে পারব না। বোকার মতো সময় নষ্ট করবেন না, খুব বেশি খাবেন না আর নারীর পেছনে ছুটবেন না।’

প্রতিদিন দু’জনই এক গ্লাস করে মদপান করেন। তাও আবার উচ্চমানের মদ। দু’জনের কেউই জীবনে কখনও লাইফ পার্টনারের ব্যাপারে উচ্চাভিলাষ দেখাননি। বরং একজন আরেকজনের বন্ধু হয়েই থেকেছেন। যেমনটা বলেছেন পিটার, ‘পলাস আমার সবচেয়ে ভাল বন্ধু।’

বয়সের ব্যাপারে পলাসের কোনো উদ্বেগ নেই। তিনি বলেন, ‘যখন আমাদের বয়স ৮৫ তখন আমরা চিকিৎসকের কাছে যাই। তিনি আমাদের বলেন, কোনো চিন্তা করবেন না, শত বছর বাঁচবেন। সত্যিই আমি কখনো এত বছর বাঁচার আশা করিনি।’ সূত্র: রয়টার্স






মন্তব্য চালু নেই